সংবাদ প্রকাশের পর বিভিন্ন স্থানে দৌঁড়-ঝাপ সরুলিয়ার সেই সমির ও মিন্টু ঘোষের

199
ভেজাল দুধের কারবার করে কোটিপতি বনে গেছেন সমির কুমার ঘোষ। ছবি- লাল সবুজের কথা।
ভেজাল দুধের কারবার করে কোটিপতি বনে গেছেন সমির কুমার ঘোষ। ছবি- লাল সবুজের কথা।

নিজস্ব প্রতিনিধি : “পাটকেলঘাটার সরুলিয়ায় দুধের কারখানায় চলছে ভেজাল কারবার” শিরোনামে গত ৪ ফেব্রুয়ারি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ যাতে প্রকাশিত না হয় তারজন্য বিভিন্ন প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তিদের দিয়ে মিন্টু কুমার ঘোষ এবং সমির কুমার ঘোষ এই প্রতিবেদকের কাছে মোবাইলে ফোন করিয়ে সংবাদটি চেপে যেতে বলেন।

এদিকে ৪ ফেব্রুয়ারি সংবাদটি প্রকাশিত হলে সর্বমহলে প্রশংসিত হতে থাকে। সেজন্য আরো কিছু তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করার কাজ চলতে থাকায় পূণরায় বিভিন্ন ব্যক্তিদের দিয়ে সংবাদ না করার জন্য এই প্রতিবেদককে বলা হচ্ছে। সরুলিয়া, পাটকেলঘাটা, এমনকি সাতক্ষীরা জেলা শহরের বিভিন্ন ব্যক্তিদের দিয়ে মোবাইলে কল করিয়ে বিষয়টি চেপে যেতে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন দুধের ভেজাল ব্যবসায়ী পাটকেলঘাটা থানার সরুলিয়া গ্রামের ঘোষপাড়ার মিন্টু এগ্রো ফার্মের মালিক মিন্টু কুমার ঘোষ এবং সমির কুমার ঘোষ।

শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সরেজমিনে সরুলিয়ায় গিয়ে জানা গেছে, মিন্টু ও সমির কুমার ঘোষ উক্ত সংবাদের প্রতিবাদ এবং তার পক্ষের সংবাদ প্রকাশ করার জন্য কিছু ভূঁইফোড় সাংবাদিককে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করছেন। যদিও ভূঁইফোড় এক শ্রেণির সাংবাদিক সবসময় ওঁত পেতে থাকেন কারোর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশিত হলে তার কাছে গিয়ে ধর্ণা দিয়ে তার পক্ষে দু’কথা লিখে কিছু অর্থ উপার্জন করার।