সর্বশেষ সংবাদ

যশোরে টানা বৃষ্টিতে বিঘ্ন কৃষিকাজ,কৃষক ধরছে দেশীয় প্রজাতির মাছ

মাসুম বিল্লাহ, ইছালি (যশোর) প্রতিনিধি : এবারের অাষাড়ে বৃষ্টির

পরিমান খুব কম থাকলেও শ্রাবণে ঝরছে লাগামহীন বৃষ্টি। কৃষক সহ কর্মমুখী মানুষের কাজের বিঘ্ন ঘটছে।যশোর সদরের কাশিমপুর ইনিয়নের অনেক কৃষকের রোপনকৃত ধান অতি মাত্রায় বৃষ্টির কারনে উপড়ে উঠে আসতে দেখা গেছে। লেবুতলা ইনিয়নের এক কৃষক বলেন বৃষ্টির কারণে রোপন কৃত জমির পাতা (অংকুরিত চারা) পানিতে ডুবে যাচ্ছেন আবার পানি সরাতে সারতে বৃষ্টির পানি শুরু হয়ে যাচ্ছে।এভাবেই চলছে। ইছালী ইউনিয়নের কয়েকজন জমির মালিক বলেন বৃষ্টির পানিতে ধান চারার যতটুকু ক্ষতি হচ্ছে তার চেয়ে বেশি ক্ষতি করছে। আলো কোটায় (রাতে লাইট জ্বালিয়ে মাছ ধরা) মাছধরা মাছুড়েরা।তারা মাছের লোভে জমিতে হাটাচলা করে ক্ষতি করে ফেলছে।

এ ব্যপারে কথা বলছিলাম, যশোর সদর উপজেলা কৃষি অফিসের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মেঃ আবু ইছা বিশ্বাসের সাথে। বর্ষাকালে কৃষকদের করণীয় কী?এবং বর্তমান মাঠের অবস্থা কী? এমন প্রশ্নের জবাবে আমাদের ইছালী প্রতিনিধি মাসুম বিল্লাহকে জানান বর্ষা বাদল হলো প্রাকৃতিক ব্যপার এখানে মানুষের কোন হাত নেই।তবে কৃষদের একটু সচেতন হতে হবে যেমন,ক্ষেতে জমা হওয়া পানি নিষ্কাশন করে দিতে হবে। পানি যাতে নিচের দিক চলে যায় সেই ব্যবস্থা সম্মিলিত ভাবে করতে হবে।আর মাছ ধরিয়াদের বলি একটু সাবধানে চলাফেরা করুন যাতে কৃষকের রোপন কৃত চারা নষ্ট না হয়।তিনি আরো বলেন সকাল সন্ধ্যা বৃষ্টির কারনে কৃষকদের কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি হলেও থেমে নেই তাদের কাজ।সকল বৃষ্টির বাঁধাকে উপেক্ষা করে সুষ্টু ভাবে বেড়ে উঠুক কৃষকের রোপন কৃত ধানের চারা এটাই সকলের প্রত্যা

শা।

error: লাল সবুজের কথা !!