সর্বশেষ সংবাদ

মাহফুজুর রহমানকে মেকআপম্যান বলিনি, পারলে প্রমাণ দিক: পপি

বিনোদন ডেস্কঃ চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভীন পপি মেকআপম্যান বলেছেন বলে বেসরকারি টেলিভিশন এটিএন নিউজ ও বাংলার চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান যে অভিযোগ করেছেন তা ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন ঢালিউড নায়িকা।

পপি বলেছেন, আমি মাহফুজুর রহমানকে এ ধরনের কোনো কথা বলিনি। উনি পারলে প্রমাণ দিক। তিনি মেকআপের ছবি প্রকাশের ঘটনায় মাহফুজুর রহমানের বিষোদগারের জবাবও দিয়েছেন।

মাহফুজুর রহমান তার গালে মেকআপ করে দিচ্ছেন- এ ছবি তিনি প্রকাশ বা ছড়িয়ে দেননি বলে দাবি করেন পপি। পাশাপাশি একজন অভিনেত্রীর প্রতি বিশেষত একজন নারীর প্রতি সম্মান রেখে মাহফুজুর রহমানকে কথা বলার পরামর্শ দেন হালের জনপ্রিয় এ নায়িকা।

প্রসঙ্গত কিছু দিন আগে সিনেমার শুটিংয়ের জন্য এফডিসিতে মেকআপ করছিলেন চিত্রনায়িকা পপি। হঠাৎ সেই সেটে হাজির হন মাহফুজুর রহমান। মেকআপম্যান ঠিকমতো মেকআপ করতে না পারায় মাহফুজুর রহমান নিজেই পপির মেকআপ ঠিক করে দেন।

এ ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয় ছবিটি। এ নিয়ে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়। সোমবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারে এটিএন বাংলার কার্যালয়ে ‘সময় ও অসময়ের গল্প’ সিরিজের নাটকের সংবাদ সম্মেলনে এ নিয়ে কথা বলেন মাহফুজুর রহমান।

অভিযোগ করে তিনি বলেন, নায়িকা পপি মেকআপের ছবি ছড়িয়ে দিয়েছেন, মেকআপম্যান বলে তাকে অপমান করেছেন। পরে পপি এ ঘটনায় তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বলেও দাবি করেন মাহফুজুর রহমান। মাহফুজুর রহমানের এ বক্তব্যের ভিডিও মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে ‘কুলি’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে সিনেমায় আসা পপি গণমাধ্যমকে বলেন, এটি একদম ভিত্তিহীন কথা। আমি কোথায় কখন মাহফুজুর রহমানকে নিয়ে এমন (মেকআপম্যান) মন্তব্য করেছি প্রমাণ দিক।

‘তিনি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের মালিক। আমি তার সঙ্গে অনেক কাজ করেছি। সেদিক থেকে তিনি আমার কাছে সম্মানের। আমি কখনও কারও সম্পর্কে কোনো খারাপ মন্তব্য করি না। কেউ আমার মনে কষ্ট দিলেও আমি তাকে আক্রমণ করে কিছু বলি না’-যোগ করেন পপি।

মাহফুজুর রহমানের বিষোদগারের বিষয়ে পপি আরও জানান, তিনি মাহফুজুর রহমানের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বলে যে দাবি করা হয়েছে, তা সঠিক নয়। তিনি মাহফুজুর রহমানের কাছে ক্ষমা চাননি।

মাহফুজুর রহমানকে নারীর প্রতি সম্মান রেখে কথা বলার পরামর্শ দিয়ে জনপ্রিয় এ নায়িকা বলেন, মাহফুজুর রহমানের শুভবুদ্ধির উদয় হোক। তার উচিত একজন অভিনেত্রীকে বিশেষত নারীদের সম্মান দিয়ে কথা বলা। এভাবে কোনো নারীকে অপমানসূচক কথা তিনি বলতে পারেন না।

পপি বলেন, যে দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন নারী, যে দেশের নারীরা প্রতিনিয়ত এগিয়ে যাচ্ছেন, সম্মানিত করছেন দেশকে। সে দেশের একজন নায়িকাকে নিয়ে মাহফুজুর রহমানের এমন মন্তব্য সত্যিই অপ্রত্যাশিত।

মাহফুজুর রহমান তাকে মেকআপ করিয়ে দেয়ার ঘটনার বিবরণ দিয়ে পপি বলেন, আমি একটি সিনেমার শুটিংয়ের জন্য এফডিসিতে মেকআপ করছিলাম। সেই সেটে মাহফুজুর রহমান স্যার এসেছিলেন। তিনি যখন দেখেন আমার মেকআপম্যান ঠিকমতো মেকআপ করতে পারছিল না, তখন তিনি নিজেই আমার মেকআপ ঠিক করে দেন।

সেই সময়কার পরিস্থিতি তুলে ধরে পপি আরও বলেন, সেই সময় (মেকআপ) সেখানকার পরিবেশটা হাস্যোজ্জ্বল ছিল। শুটিং সেটে চলচ্চিত্র অঙ্গনের লোকজন ছাড়াও অনেক সংবাদকর্মী এবং আলোকচিত্রীও ছিলেন। সবাই সেই ছবি তুলে ফেলেন। সেই ছবি নিয়ে পত্রিকাসহ গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ করে।

পপি কাউকে এ নিয়ে নিউজ করতে নির্দেশনা দেননি জানিয়ে বলেন, আমি আজ পর্যন্ত কোনো সাংবাদিককে ফোন করে বলিনি আমার সংবাদ করতে, তারা নিজেরাই ফোন করে আমার কাছ থেকে সংবাদ সংগ্রহ করেন। আমি জানি না, আমার দোষটা কোথায়?

এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ভুল তথ্য পেয়েছেন জানিয়ে পপি বলেন, মাহফুজুর রহমান স্যার কেন এমন করে বললেন (প্রতিক্রিয়া) সেটিও জানি না। হয়তো কারও মাধ্যমে তিনি ভুল তথ্য পেয়েছেন।

প্রসঙ্গত কিছু দিন আগে সিনেমার শুটিংয়ের জন্য এফডিসিতে মেকআপ করছিলেন চিত্রনায়িকা পপি। হঠাৎ সেই সেটে হাজির হন মাহফুজুর রহমান। মেকআপম্যান ঠিকমতো মেকআপ করতে না পারায় মাহফুজুর রহমান নিজেই পপির মেকআপ ঠিক করে দেন।

এই ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয় ছবিটি। এ নিয়ে হাস্যরসের সৃষ্টি হয়। সোমবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারে এটিএন বাংলার কার্যালয়ে ‘সময় ও অসময়ের গল্প’ সিরিজের নাটকের সংবাদ সম্মেলনে এ নিয়ে কথা বলেন মাহফুজুর রহমান।

মাহফুজুর রহমান পপিকে বিষোদগার করে বলেন, নায়িকা পপি এ ঘটনায় তার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি পপিকে ক্ষমা করবেন যদি তিনি (পপি) সবার সামনে তার পা ধরে ক্ষমা চান। এবং সেই ক্ষমা চাওয়ার ছবি টেলিভিশনে প্রচার করতে পারেন।

এটিএন বাংলা ও নিউজের চেয়ারম্যান বলেন, ‘পপি একটা ছবি ছড়িয়ে দিয়েছিল, তাকে আমি মেকআপ করে দিচ্ছি। ওই শয়তান মেয়েটা এটি করল। ওর এ জিনিসটা করা খুবই জঘন্যতম কাজ হয়েছে। সে লিখেছে- এখন থেকে পপির নতুন মেকআপম্যান মাহফুজুর রহমান। কত জঘন্য কাজ এটি বলেন…। তার পর থেকে পপিকে এই এরিয়ার (এলাকায়) মধ্যে আমি ঢুকতে দিই না।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় পরে পপি মাফ চেয়েছেন। পপিকে আমি তখনই মাফ করব, যখন সে পা ধরে মাফ চাইবে এবং সেটি আমি টিভিতে দেখাব।

মাহফুজুর রহমান বলেন, এ ঘটনার পর সুদর্শনী পপি এমনও বলেছে যে, চেয়ারম্যান স্যারের (মাহফুজুর) পা ধরে আমি মাফ চাইব। পপির মতো একটা শিল্পী আমার পা ধরে মাফ চাইবে।

পপিকে মাফ করবেন না জানিয়ে মাহফুজুর রহমান বলেন, তখনই মাফ করব যখন সে পা ধরে মাফ চাইবে এবং সেই ভিডিও টিভিতে দেখাব। যদি সে এটা দেখায় তা হলে আমি মাফ করব, না হলে করব না।

দম্ভ নিয়ে মাহফুজুর রহমান বলেন, দর্শক দেখুক, ভুলের জন্য নায়িকা পপি মাহফুজুর রহমানের পা ধরে মাফ চাচ্ছে।

জাতীয় পুরস্কার পাওয়া এই অভিনেত্রীকে বহু কাজ দিয়েছেন উল্লেখ করে মাহফুজুর রহমান বলেন, পপি হারামজাদী। পর পর ৫টা ছবিতে আমি তাকে নিয়েছি। তার পরও সে এমনটি করল।

error: লাল সবুজের কথা !!