পান্ডা আর ছারপোকার মলের চা! জানুন বিশ্বের ১০টি উদ্ভট চায়ের হদিশ

147
চা

চা ছাড়া দিন আর অক্সিজেন ছাড়া জীবন ভারতীয়দের কাছে সমার্থক। বিশেষ করে বাঙালিদের কাছে এক কাপ চায়ের মাহাত্ম্য যে কী তা ইতিহাস জানে। এই বঙ্গের প্রতিটি অলিতে গলিতে সকাল থেকে রাত্রি চায়ের অগুনতি ঠেক জানান দেয় বাঙালির কাছে কেবল জল নয়, জীবনের অন্য নাম চা। মাথা ব্যথায় আদা চা, গলা খারাপে তুলসী চা থেকে শুরু করে লেবু চা আর কড়া করে দুধ চা তো রয়েইছে।

কিন্তু আপনি কি জানেন যে পৃথিবীতে এমন হরেক কিসিমের চা রয়েছে যা আমাদের মিষ্টি চা, মশলা চা, লিকার চায়ের থেকে আলাদা তো বটেই, খানিক উদ্ভটও!

এখানে রইল সারা বিশ্বের সেরা ১০ টি উদ্ভট চায়ের সন্ধান:

10. পান্ডার মলের চা (Panda Dung Tea)

চিন্তা করবেন না, এটা পান্ডার মল থেকে তৈরি করা হয় না। পান্ডা ডাং চা আসলে চিনের সিচুয়ানের ইয়াং প্রদেশে চাষ করা এক ধরনের চা যাতে সার হিসাবে পান্ডার মল ব্যবহার করা হয়। এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামী চায়ের অন্যতম।

9. টমেটো মিন্ট চা (Tomato Mint Tea)

নামের মতোই এই চা টমেটো, পুদিনা এবং কালো চায়ের একটি দুর্দান্ত ভূমধ্যসাগরীয় মিশ্রণ। এর স্বাদ ব্যখ্যা করে অনেকেই বলেছেন স্যুপের মতো।

8. রসুন চা (Garlic Tea)

আপনি কি জানেন যে আপনি এক গ্লাস চায়ের মতো করে রসুন খেতে পারেন? এবং এই চায়ের স্বাস্থ্যগুণও অনবদ্য! এখানে রসুন চায়ের সুবিধা সম্পর্কে আরও পড়ুন এখানে।

7. ছারপোকার মলের চা (Bug Poop Tea)

পান্ডা ডাং চায়ের থেকে এটি ভিন্ন। এই চা সত্যি করেই ছারপোকার মল দিয়েই বানানো! এই চা শস্যের মথ লার্ভার মল থেকে তৈরি করা হয়। এই লার্ভাদেরকে খাওয়ানো হয় কেবলই জৈব চা পাতা।

6. সিলোসিবিন মাশরুম চা (Psilocybin Mushroom Tea)

সিলোসিবিন মাশরুম শক্তিশালী সাইকেডেলিক্স এবং ভারতে নিষিদ্ধ।

5. স্পার্কলিং চা (Sparkling Tea)

স্পার্কলিং চা আসলে এই শতাব্দী প্রাচীন পানীয়ে সামান্য টুইস্ট। এটা তৈরি হয় বোতলবন্দি চায়ে কার্বনেশন যোগ করে এবং সাধারণত ঠান্ডাই খাওয়া হয়।

4. পু-এরহ চা (Pu-Erh Tea)

এটি চিনে তৈরি একটি বিশেষ ফার্মেন্টেড চা। এটি একধরণের সবুজ চা যা ধীরে ধীরে একটি বিশেষ ছত্রাক ব্যবহার করে পুরনো করা হয় এবং সারা বিশ্বেই এর জনপ্রিয়তা বেশ ভালো।

3. কম্বুচা চা (Kombucha Tea)

সাম্প্রতিক বছরগুলিতে কম্বুচা চায়ের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে। এটি একটি টক চা যা ব্যাকটেরিয়া এবং ইস্ট ব্যবহার করে তৈরি করা হয়।

2. স্যালভিয়া চা (Salvia Tea)

এটিও একটি হ্যালুসিনোজেন পানীয় যা মেক্সিকান আধ্যাত্মিক অনুষ্ঠানগুলিতে খাওয়া হয়। এই বিশেষ চা খাওয়ার চেষ্টা না করাই ভালো, কারণ এটি বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে নিষিদ্ধ।

1. ফার্মেন্টেড ইয়াক মাখন চা (Fermented Yak Butter Tea)

এই মাখনযুক্ত কনকোশন চা ইয়াক মাখন এবং লবণ মিশিয়ে খাওয়া হয়। এর প্রস্তুতিতে অর্ধেক দিন লেগে যেতে পারে, এবং এটি নেপাল, ভুটান, ভারত এবং তিব্বতের হিমালয়ের অঞ্চলে জনপ্রিয় পানীয়।