চোর সিন্ডিকেটের ৫ মহিলা সদস্য আটক, অত:পর ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান

18
অপরাধ

কলারোয়া প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় চোর সিন্ডিকেটের ৫ মহিলা সদস্যকে থানা পুলিশ আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাদের ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় চুরি হয়ে যাওয়া ১৫ পিচ শাড়ী। ঘটনাটি মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে পৌর বাজারের চৌ-রাস্তা মোড় থেকে তাদের আটক করে থানা পুলিশ।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার দেবনাথের নির্দেশ মোতাবেক থানার সেকেন্ড অফিসার বিপ্লব রায়, এএসআই আহসান হাবিব ও এএসআই নূর আলী অভিযান পরিচালনাকালে চোর সিন্ডিকেটের সক্রিয় ৫ সদস্যরা ঈদকে সামনে রেখে পৌর বাজারের বিভিন্ন কাপড়ের দোকান থেকে শাড়ী চুরি করে নিয়ে পালানোর সময় থানা পুলিশ তাদের হাতে নাতে আটক করেন।

 

পরে চোরদলের ৫ সদস্যদের আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতকে খবর দিলে তাৎক্ষনিক ভ্রাম্যমান আদালতের নিবার্হী ম্যাজিস্টেট ও নিবার্হী কর্মকর্তা মনিরা পারভীন উপস্থিত হয়ে আদালত বসিয়ে চোরদলের ৫ সদস্যদের প্রত্যেককে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

চোরেরা হলেন, সাতক্ষীরা সদরের কাশেমপুর গ্রামের কামাল হোসেনের স্ত্রী পলি খাতুন (৩৫), একই গ্রামের হাশেম ঢালীর স্ত্রী মর্জিনা খাতুন (৪০), রসুলপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী রেখা খাতুন (৩৬), একই গ্রামের মৃত মোস্তফা হোসেনের স্ত্রী কোহিনুর রহমান (৪৩) ও মৃত আবু হাসানের স্ত্রী ফেলি ফতেমা (৪০)।

তারা কাপড়ের দোকান থেকে শাড়ী চুরি করে পালানোর সময় থানা পুলিশের হাতে আটক হয়ে ভ্রাম্যমান আদালতে মাধ্যমে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত হয়।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার নূরুল ইসলাম, উপজেলা নিবার্হী অফিসের বেঞ্চ সহকারী এমএ মান্নান পলাশ।