চলমান সারাদেশব্যপী মাদকবিরোধী সাড়াশি অভিযানে কলারোয়া উপজেলাধীন ১১ নং দেয়াড়া ইউনিয়নে গ্রেফতার-২

101
লাল সবুজের কথা

কলারোয়া সংবাদদাতাঃ ২৫.০৫.২০১৮ ইং তারিখ সন্ধ্যায় ১১ নং দেয়াড়া ইউনিয়নের পাকুড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুল আজিতের স্ত্রীর নিকট হতে ইয়াবা কিনতে গিয়ে পাকুড়িয়া শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের সদস্যদের হাতে তাড়া খায় দলুইপুর গ্রামের প্রবাসী আক্তারুল ইসলামের ছেলে রায়হান। তারপর রায়হান সাবধানতা অবলম্বন করে ২৬.০৫.২০১৮ইং তারিখ নিজের সাইকেল দিয়ে ন্যাদা সরদারের ছেলে তুহিন সরদারকে টাকার প্রলোভন দেখিয়ে ইয়াবা নিতে পাঠায়।

কথিত শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদে ঔত পেতে থাকা সদস্য’রা রায়হানের সাইকেল টার্গেট করে তুহিন সরদারকে পাকড়াও করে এবং তার শরীর তল্লাশি করে।
শরীর তল্লাশী করে ইয়াবা পেয়ে তা সংগ্রহে রেখে খবর দিলে খোরদো পুলিশ ক্যাম্পের সহঃ উপ পুলিশ পরিদর্শক এজাজ মাহমুদ সঙ্গীয় সোর্স সহ পাকুড়িয়ার কথিত শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ সংলগ্ন ঘটনাস্থল থেকে তুহিন সরদারকে গ্রেফতার করে খোরদো পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে আসে।

সূত্র আরও জানায়,সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল পাকুড়িয়া কথিত শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের প্রধান কার্যালয় থেকে আসামি তুহিন সরদারকে গ্রেফতারের সময় একই গ্রামের মৃত আজিতের স্ত্রীকেও দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।যে তার দুই ছেলে সুজন ও রানার মাধমেও কথিত শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের ঐ জায়গায় ইয়াবা সরবরাহ করে থাকে বলে জানায়,১১নং দেয়াড়া ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সদস্য বায়জিৎ।

পরে জিঙ্গাসাবাদে আসামী তুহিন সরদার পুলিশের নিকট স্বাক্ষ্য দেন যে,ইয়াবাগুলো সে একাধিক মাদক মামলার আসামী পাকুড়িয়া গ্রামের আনিছুর রহমানের নিকট হতে নিয়ে এসেছে।

আসামীর স্বাক্ষ্যানুযায়ী আনিছুর রহমানকে ২৭.০৫.২০১৮ ইং তারিখ গ্রেফতার দেখানো হয় ।