ক্যারিয়ার সেরা বোলিং সৌম্য সরকারে

খেলাধুলা ডেস্কঃ শক্তিশালী প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে একরকম পার্ট টাইম বোলারদের ওপর ভরসা করে মাঠে নেমেছিল আবাহনী লিমিটেড।

নবম রাউন্ডের ওই ম্যাচে একজন বোলার কম নিয়েই খেলতে নেমে গিয়েছিল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। আর সে ভরসা সঠিক ছিল এমনটাই প্রমাণ দিলেন আবাহনী লিমিটেডের পার্টটাইম মিডিয়াম পেসার সৌম্য সরকার।

এদিন নিয়মিত বোলারদের মতোই পূর্ণ ১০ ওভার বোলিং করে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়লেন সৌম্য সরকার। সৌম্যর বোলিং পারফরম্যান্স দেখে অধিনায়ক ইনিংসের শেষ ওভারটি করতেও তার হাতে বল তুলে দেন। ভরসা অটুট রাখেন তিনি। শেষ ওভারে ২ উইকেট নেন তিনি। দেলেশ্বরের তাইবুর পারভেজ ও মানিক খানকে সাজঘরে পথ দেখান।

এর আগে ইনিংসের ১৪তম ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিং আক্রমণে আসেন সৌম্য। নিজের পঞ্চম ওভারে গিয়ে ১৪তম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে আসেন সৌম্য। নিজের পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে প্রাইম দোলেশ্বরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ফরহাদ হোসেনকে (৪৭) সাজঘরে ফেরান। নবম ওভারে দলের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মার্শাল আইয়্যুব (৪০)কে প্যাভিলিয়নে পাঠান।

এভাবে পূর্ণ ১০ ওভার করে মাত্র ৩৪ রান খরচায় ৪ উইকেট নিয়েছেন সৌম্য। এটি লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে সৌম্যের সেরা বোলিং।

এর আগে ২৫ রানে ৩ উইকেট ছিলো তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। সৌম্যর ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের দিনে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রানে থামতে হয়েছে প্রাইম দোলেশ্বরকে।

সৌম্যর ৪ উইকেট ছাড়াও মাশরাফি বিন মর্তুজা ২ ও মেহেদি হাসান মিরাজ, সাব্বির রহমান এবং মোহাম্মদ সাঈফউদ্দীন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

এবার ব্যাট হাতে প্রাইম দোলেশ্বর কুপোকাত করতে পারলে পুরো ম্যাচটাই সৌম্যর হয়ে যাবে।

error: লাল সবুজের কথা !!