নেশাগ্রস্ত স্বামীর হাতে গর্ভবতী স্ত্রীসহ ২ সন্তান খুন!

12

দেশের খবর : রংপুরে নেশাগ্রস্ত স্বামীর হাতে খুন হয়েছে গর্ভবতী স্ত্রীসহ দুই সন্তান। রোববার (৮ ডিসেম্বর) সকালে নগরীর বাহার কাছনা এলাকায় এঘটনা ঘটে। রিকশাচালক আবদুর রাজ্জাক নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গলা কেটে তার স্ত্রীকে এবং দুই শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এ ঘটনায় পুলিশ রাজ্জাককে গ্রেফতার করেছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বাহার কাছনা কাকিনা ব্রিজ সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রিকশাচালক আবদুর রাজ্জাক। আজ সকালে স্ত্রীর সাথে ঝগড়ার একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে স্ত্রী তাসনিয়া আক্তার রত্নার (৩৫) গলা কাটে। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই রত্নার মৃত্যু হয়। রত্না সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এরপর তার দেড় বছর বয়সী শিশু সন্তান রেহান ও সাত মাসের নবজাতক শিশুকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে। রিকশাচালক আবদুর রাজ্জাক প্রায় নেশাগ্রস্ত হয়ে স্ত্রীকে ধরে মারপিট করত অভিযোগ করেছে এলাকাবাসী। এঘটনার পর রাজ্জাক তার গলা কেটে নিজেই আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

এদিকে খবর পেয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালী, মাহিগঞ্জ ও হারাগাছ থানার পুলিশ এবং র‍্যাব-১৩ এর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন। ঘটনাস্থল থেকে রিকশাচালক আবদুর রাজ্জাককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কোতোয়ালী থানার পুলিশের জোন প্রধান জমির উদ্দিন।

তিনি জানান, দুপুরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় ওই রিকশাচালককে গ্রেফতার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এখন পর্যন্ত এ হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে নেশাগ্রস্ত রিকশাচালক পারিবারিক কলহের জের ধরে এঘটনা ঘটাতে পারে।