৫ নিয়ম মেনে দূরে রাখুন কিডনির সমস্যা

স্বাস্থ্য ডেস্কঃ আমাদের শরীরের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ হল বৃক্ক বা কিডনি। আমাদের শরীরের রক্ত পরিশোধনকারী অঙ্গ হল কিডনি। শরীরে জমে থাকা নানা রকম বর্জ্য পদার্থ পরিশোধিত হয় কিডনির মাধ্যমে।

ভারতে দীর্ঘদিন ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছেন, এমন মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। সংখ্যাটা দিনে দিনে বেড়েই চলছে! জানা গিয়েছে, কিডনির সমস্যায় আক্রান্তদের মধ্যে পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের সংখ্যাটাই বেশি। সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, কিডনির নানা সমস্যায় মহিলাদের আক্রান্ত হওয়ার হার প্রায় ১১.৩৬ শতাংশ।

অন্যদিকে, ৯.৪৮ শতাংশ পুরুষদের মধ্যে কিডনির সমস্যা দেখা গিয়েছে। মাত্রাতিরিক্ত শারীরিক-মানসিক চাপ এবং অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাসের ফলে কিডনির নানা সমস্যা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। শরীরের সার্বিক সুস্থতা বজায় রাখতে কিডনির যত্ন নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। আর কিডনি ভাল রাখতে আমাদের কিছু নিয়ম অবশ্যই মেনে চলা উচিৎ। আসুন জেনে নেওয়া যাক কিডনি সুস্থ রাখার কয়েকটি উপায়।

কিডনি সুস্থ রাখতে প্রতিদিন অবশ্যই অন্তত ২ থেকে ৩ লিটার জল খাওয়া জরুরি। তবে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর স্বাভাবিক সুস্থ জীবনে ফেরার আগে পর্যন্ত কতটা জল খাবেন, তা জানতে চিকিত্সকের পরামর্শ নিন।

প্রস্রাব কখনওই চেপে রাখবেন না। এতে মূত্রথলিতে সংক্রমণ (ইনফেকশন) হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

চিকিত্সকের পরামর্শ ছাড়া কোনও ওষুধ, বিশেষ করে ব্যথানাশক (পেনকিলার) ওষুধ বা কোনও অ্যান্টিবায়োটিক খাবেন না। মাত্রাতিরিক্ত ব্যথানাশক ওষুধ বা কোনও অ্যান্টিবায়োটিক কিডনির মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে।

আপনার বয়স যদি চল্লিশ বছর বা তার চেয়ে বেশি হয়, সেক্ষেত্রে নিয়মিত বছরে অন্তত একবার ডায়বেটিস আর রক্তচাপ (ব্লাড প্রেশার) পরীক্ষা করান। ডায়বেটিস বা রক্তচাপের সমস্যা থাকলে, তা নিয়ম মেনে নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন।

বছরে অন্তত একবার চিকিত্সকের পরামর্শ মেনে প্রসাবের মাইক্রো-এলবুমিন পরীক্ষা করান।

তথ্য: ডক্টর কেরি উইলস (ন্যাশনাল কিডনি ফাউন্ডেশন, নিউ ইয়র্ক)।

error: লাল সবুজের কথা !!