১৮ বছরের অভিমান ভেঙ্গে আবারও একসঙ্গে

বিনোদন ডেস্কঃ আঠারো বছর আগে ২০০১ সালের কথা। এক প্রচন্ড আর্তনাদের সুরে চৌচির হয়ে যাওয়া বুকের ব্যথা ছড়িয়ে পড়লো ৫৬ হাজার বর্গ মাইল জুড়ে। বাংলা গানের সুরে কোটি মানুষের মনে যুবরাজ হয়ে স্থায়ী আসন গড়ে নিলেন যে যুবক, তিনি আসিফ আকবর। হয়ে উঠলেন কোটি প্রাণের সুখ-দুঃখ, প্রেম ও অনুভূতির ধারক বাহক। কোটি কোটি ভক্ত তার কণ্ঠে আশ্রয় খুঁজে নিল যাপিত জীবনের কঠোরতা থেকে একটু জ্যোৎস্নার আবেশ।

গানের আবেগী যাদুকর, বাংলা গানের যুবরাজ খ্যাত আসিফ আকবরের সেই রাজকীয় অভিষেক-সঙ্গীত ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’ এর বয়স এখন ১৮ ছাড়িয়ে ১৯ তম বসন্তে। এখনো যেন সেই গানের উন্মদনার রেশ এতটুকুও কমেনি।‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’র এই উন্মাদনায় যুবরাজ আসিফ আকবরের সাথে আরেকটি নাম আস্টেপৃস্টে জড়িয়ে আছে। তিনি ইথুন বাবু। কেননা গানটির কথা, সুর ও সঙ্গীত ছিলো ইথুন বাবুর করা।

ও প্রিয়ার পর আর একসাথে কাজ করা হয়নি এই দু’জনের। এবার ১৮ বছর পর আবারও একসঙ্গে গান করলেন এই জুটি। ইথুন বাবুর কথা ও সুরে নতুন একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন আসিফ আকবর। গানের শিরোনাম ‘চুপচাপ কষ্টগুলো’। গানটির সঙ্গীতায়োজনও ইথুন বাবুর করা। তার সঙ্গে সহযোগিতা করেছেন রোজেন। গানটি প্রকাশ করছে ‘ধ্রুব মিউজিক স্টেশন’ (ডিএমএস)।

ইতিমধ্যে চোখ ধাঁধানো গল্পে গানটির ভিডিও নির্মিত হয়েছে। ভিডিওতে আসিফের সাথে ২য় বারের মতো জুটি বেঁধেছেন মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার বহুল আলোচিত প্রতিযোগী জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। গানটির ভিডিও নির্মাণও করেছেন ইথুন বাবু। কোরিওগ্রাফীতে ছিলেন হাবিব।

আসিফ আকবর জানালেন, ‘ভালো লাগাটা অন্যরকম। কারণ প্রথম কাজ ছিল তার সঙ্গে। অভিমান ছিল, সেটা এখন আর নেই। আবারও নিয়মিত কাজ করার ইচ্ছা আছে। নতুন গানটিও বেশ ভালো হয়েছে। এভ্রিল খুবই আন্তরিকতা এবং দায়িত্ববোধের সাথে কাজটি করেছে। আশা করছি শ্রোতা-দর্শকদের ভালো লাগবে।’

ইথুন বাবু বলেন, ‘আমি নিয়মিত গান লিখি, সুর করি। আসিফের সঙ্গে ১৮ বছর ধরে কোনো কাজ করা হয়নি। অনেকদিন পর দুই ভাই একসঙ্গে কাজ করতে পেরে ভালো লাগছে। আশা করছি আসিফের গাওয়া গানটি সবার ভালো লাগবে।’

২৪ ফ্রেব্রুয়ারি গানটি ধ্রুব মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেলে অবমুক্ত করা হবে। পাশাপাশি গানটি শুনতে পাওয়া যাবে ডিএমএস ওয়েবসাইট, জিপি মিউজিক এবং বালালিংক ভাইবে।

error: লাল সবুজের কথা !!