সালাহ রোজা ভাঙতে পারবেন না বলে ফতোয়া

14
লাল সবুজের কথা

ঘনিয়ে আসছে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের ক্ষণ। আগামী ২৬ মে ইউক্রেনের কিয়েভে ফাইনালি লড়াইয়ে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে লিভারপুল।  দীর্ঘ ১৩ বছর পর ইউরোপসেরা টুর্নামেন্টের শিরোপা ঘরে তুলতে মুখিয়ে অলরেডরা।

এতে মোহাম্মদ সালাহর সেরাটা চান তারা। তবে এ জন্য তিনি রোজা ভাঙতে পারবেন না বলে ফতোয়া দিয়েছেন মুসলিম সালাফি নেতা ইয়াসের বোরহামি।

সালাহ একজন নিবেদিত মুসলিম। মাঝেমধ্যেই সেজদা প্রদানের মাধ্যমে গোল উদযাপন করেন তিনি। নিয়মিত রোজা রাখেন। চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে রোজা রেখে খেলবেন মিসরীয় এ ফরোয়ার্ড। তবে দলীয় স্বার্থে তা ভাঙতে পারবেন না বলে ফতোয়া দিয়েছেন বোরহামি।

তিনি বলেন, ইসলামি শরিয়াহ আইন অনুযায়ী, কারো বা স্বীয় স্বার্থে কেউ রোজা ভাঙতে পারবেন না। সালাহও এর বাইরে নন।

বোরহামি এক বিবৃতিতে বলেন, কোরআনের কোথাও বলা নেই- ফুটবলারদের জন্য রোজা মওকুফ করা হয়েছে। জীবন রক্ষার্থে কঠোর পরিশ্রম করতে হলেই কেবল রোজা ভাঙা যায়। ফুটবল খেলা কখনই হাড়ভাঙা পরিশ্রমের আওতায় পড়ে না। যার জন্য রমজানে রোজা ভাঙতে পারবেন মুসলিমরা।

আগামীকাল শুক্রবার শুরু হচ্ছে পবিত্র মাহে রমজান। মুসলিম সম্প্রদায়ের তাৎপর্যপূর্ণ মাসটির প্রথম সপ্তাহের শেষ দিকে হবে এই মহারণ। সেহরির মাত্র কয়েক ঘণ্টা পর শুরু হবে রিয়াল-লিভারপুল ময়দানি লড়াই।

রোজা রেখে খেললে সালাহ নিজের সর্বোচ্চটা দিতে পারবেন না বলে ধারণা করছেন অন্য ধর্মাবলম্বীরা।