সামান্য সাহায্যে হতে পারে কোটচাঁদপুরের দগ্ধ সাথীর চিকিৎসা

8
সামান্য সাহায্যে হতে পারে কোটচাঁদপুরের দগ্ধ সাথীর চিকিৎসা

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি॥ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সলেমানপুর গ্রামের মাসুদ রানার স্ত্রী সাথী খাতুন (২০) পেশায় গৃহিনী। গত ২৩ ডিসেম্বর পরিবারের জন্য রান্না করতে যেয়ে হটাৎ নিজের অজান্তে আগুন লাগে সাথীর শাড়ীতে। কিছু বুঝে উঠার আগেই শরীরের অর্ধেক অংশ জলন্ত আগুনে দগ্ধ হয়ে ঝ¦লসে যায়।

পরিবারের সদস্যরা দ্রুত সাথীকে উদ্ধার করে কোটচাঁদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে পাঠানো হয় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে।

কিন্তু সাথীর সু-চিকিৎসায় বাদ সাজে দিনমজুর স্বামী মাসুদ রানার অর্থাভাবের কাছে। অভাব-অনটনের সংসারে যেখানে নুন আনতে যেন পানতা ফুরায়। সেখানে উন্নত চিকিৎসা কল্পনার অন্তরায়। নিজের যা কিছু ছিল তা দিয়ে প্রথম দিকে চিকিৎসা করালেও বর্তমানে অর্থাভাবের জন্য বিনা চিকিৎসায় হাসপাতাল থেকে বাড়ীর বিছানায় শুয়ে শুয়ে কাতরাচ্ছেন দগ্ধ সাথী।

নিজের স্ত্রীর এমন কষ্ট-যন্ত্রনা দেখতে না পেয়ে রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছেন অসহায় দিনমজুর স্বামী মাসুদ রানা। কিন্তু রাস্তায় নেমেও কি হবে স্ত্রী সাথীর সু-চিকিৎসা! সাথী কি পারবেন সুস্থ্য হয়ে স্বামীর সংসার করতে! এমন আশঙ্কায় সাহায্যের জন্য হাত বাড়িয়েছেন সমাজের বিত্তবান মানুষের কাছে।

যদি কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি সাথীকে সাহায্য করতে চান তাহলে যোগাযোগ ০১৮৫১-১৭৬৩১১ (রাহুল), মাসুদ রানা: ০১৯১১-৮১৬০৪০ (বিকাশ) এ নাম্বারে পাঠাতে পারেন। আপনার সামান্য সাহায্যেই হতে পারে দগ্ধ সাথীর সু-চিকিৎসা।