সাতক্ষীরায় মারা গেছে শুনেই হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়ে গেছে স্বজনেরা

15

স্টার্ফ রিপোর্টার: মারা গেছে শুনেই হাসপাতালে লাশ রেখে পালিয়ে গেছে স্বজনেরা। বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাাতালে এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, রাত নয়টার দিকে কয়েকজন ব্যক্তি সাতক্ষীরা সদরের বল্লী ইউনিয়নের আমতলা গ্রামের মৃত অজিহার মোড়লের ছেলে ইউসুফ মোড়ল(৫০)কে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালের ইমার্জেন্সীতে নিয়ে আসে। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তােেক মৃৃত ঘোষণা করলে সাথে থাকা স্বজনেরা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ইউসুফ মোড়লের ২ মেয়ে। প্রথম মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। দ্বিতীয় মেয়ের বিয়ে নিয়ে খুব উদ্বিগ্ন ছিল ইউসুফ মোড়ল। প্রায়ই দ্বিতীয় মেয়ের বিয়ে সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বাকবিতন্ডা হতো স্ত্রীর সাথে। বুধবার সন্ধায় পারিবারিক কলহের কারণে গ্যাসট্যাবলেট খেয়ে চুপচাপ বাড়ির পাশে বসে ছিল। এরপর মারাত্মক অসুস্থ হয়ে গেলে তার স্বজনেরা তাকে দ্রুত সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়, এবং পথিমধ্যেই সে মারা যায়।

সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ শরীফুল আলম বলেন, হাসপাতাল সূত্রে জানতে পেরে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তিনি গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। লাশ ময়না তদন্ত করা হচ্ছে। ময়না তদন্ত শেষে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে।