সাতক্ষীরায় দুই শীর্ষ সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি : কালিগঞ্জে বিকাশের ২৬ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের মামলার দুই আসামী পুলিশের সাথে এনকাউন্টারে নিহত হয়েছে। নিহতদের নাম দীপ ও সাইফুল। দীপ শহরের মুনজিতপুর এলাকার ডেকোরেটর ব্যবসায়ী মঈনুল ইসলামের ছেলে। সাইফুল ইসলাম কালিগঞ্জের উজিরপুর গ্রামের আব্দুস সবুর সরদার ছেলে।

পুলিশ জানায়, ৩১ অক্টোবর বিকেল ৫টার দিকে শ্যামনগর উপজেলার বিকাশ এজেন্টের শাখা ব্যবস্থাপক প্রদীপ কুমার দে, ফিল্ড কর্মকর্তা তামিম এবং কাষ্টমার কেয়ারের কর্মকর্তা মিথুন কুমার সাতক্ষীরা সাউথইষ্ট ব্যাংক থেকে বিকাশের ২৬ লক্ষ টাকা উত্তোলন করে মোটর সাইকেলে শ্যামনগরে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে কালিগঞ্জের মৌতলা ইউনিয়নের কাটাখালি এলাকায় পৌছালে বিপরীত দিক থেকে ৩ ছিনতাইকারী একটি মোটরসাইকেলে যোগে এসে বিকাশ কর্মকর্তাদের গতিরোধ করে। এসময় ওই ছিনতাইকারীরা ২ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে বিকাশ এজেন্টের কর্মকর্তাদের কাছে থাকা ২৬ লাখ টাকা ভর্তি ব্যাগ ছিনতাই করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ ঘটনায় বিকাশ এর শ্যামনগর উপজেলা ডিস্ট্রিবিউটর আবু বক্কর সিদ্দীক মিরু অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় মামলা করেন (মামলা নম্বর: ১, তারিখ: ০১-১১-১৯ খ্রি.)।

এদিকে উক্ত টাকা ছিনতাই মামলার বেশ কয়েকজনকে পুলিশ শুক্রবার আটক করে এবং তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রাত ৩টার দিকে সাতক্ষীরা বাইপাস সড়ক এলাকায় অস্ত্র উদ্ধার করতে গেলে সন্ত্রাসীদের সহযোগীরা তাদেরকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এসময় এনকাউন্টারে দীপ ও সাইফুল নিহত হয়। সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করেছে।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মো: মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সাংবাদিকদের বলেন, সম্প্রতি সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে বিকাশ কোম্পানির ২৬ লাখ টাকা ছিনতাই হয়। এ ঘটনায় কালিগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলায় শুক্রবার দীপ ও সাইফুল কে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ আটক করে। পরে তাদেরকে নিয়ে টাকা উদ্ধার অভিযানে গেলে তাদের সহযোগীরা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা কয়েক রাউন্ড গুলি করে। এ ঘটনায় দীপ ও সাইফুল গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। তাদের বিরুদ্ধে হত্যা,ছিনতাইসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

error: লাল সবুজের কথা !!