শ্বাসকষ্ট রোগীর ফ্রি চিকিৎসা শুরু করেছে কলারোয়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

11

জুলফিকার আলী, কলারোয়া প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার কলারোয়ায় স্বাসকষ্ট রোগীর ফ্রি চিকিৎসা শুরু হয়েছে। রবিবার সকালে কলারোয়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এ সংক্রান্ত একটি সাইবোর্ড দিয়ে জনসাধারণের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন।

এবিষয়ে কলারোয়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা: আব্দুল বারিক জানান-করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ সচেতনতা কার্যক্রম শুরু করেছেন তারা। তিনি বলেন, তার হাসপাতালে এখন থেকে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত লক্ষণ ভিত্তিক (সর্দি, কাশি, জ¦র, গলাব্যথা, শরীর ব্যথা ও স্বাসকষ্ট) সহ বিভিন্ন রোগীদের বিনামূল্যে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা শুরু করেছেন। কলারোয়া হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের বহির বিভাগে যে কোন সাধারণ মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে পারেন। কলারোয়া হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ডাক্তারেরা নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিরলস ভাবেসেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

সেই সাথে দিয়ে যাচ্ছেন করোনা ভাইরাসের সচেতনতামূলক পরামর্শ। এবিষয়ে কলারোয়া হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডাক্তার আব্দুল বারিক আরো জানান, আমাদের হাসপাতালে ৩৬জন ডাক্তার রয়েছেন। সরকারের দিক নির্দেশনা মোতাবেক কলারোয়ায় এই সংকটময় মুহুর্তে সাধারণ রোগীর চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছেন। এখন গ্রাম অঞ্চলের মানুষ সর্দি, কাশি, জ্বর হলেও করোনা রোগের আক্রান্তের ভয়ে ভুগছে।

এসকল রোগীদেরকে ডাক্তারগণ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন। করোনার উপসর্গ থাকলে তাৎক্ষনিক ভাবে তাদের নমুনা সংগ্রহের জন্য কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। একই সাথে তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকারও পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, এই কাজ গুলো করার জন্য ৬ সদস্য বিশিষ্ট একটি টিম রয়েছে। তার মধ্যে প্রধান হলো-অধ্যক্ষ ডা: আব্দুল বারিক, মেডিকেল অফিসার ডা: সেলিনা আক্তার, সহকারী ডা: হাবিবুর রহমান, ডা: ফতেমা খাতুন, ডা: আক্কাজ আলী, ডা: মিজানুর রহমান। আর এই টিম ১ এপ্রিল মাসের বুধবার থেকে কাজ শুরু করেছে।