লাউ চাষে স্বাবলম্বী ধানদিয়ার কৃষকরা

49

আবু সাঈদ : তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার ১নং ধানদিয়া ইউনিয়ানের মৌলভী বাজারে পাশে গ্রীষ্মকালীন লাউয়ের চাষ দিন দিন বাড়ছে। সবজি হিসেবে লাউয়ের চাহিদা থাকায় বাজারে দামও ভাল। অল্প খরচে বেশি লাভের আশায় মৌলভী বাজার চাষিরা ঝুঁকছেন লাউ চাষে।

দেশে সবজির চাহিদা সারা বছর থাকে। সেই চাহিদা মেটাতে মৌলভীবাজারের পাশে সারা বছর বিভিন্ন ধরনের সবজি উৎপাদিত হয়। এর মধ্যে লাউয়ের চাষ অন্যতম। এই চাষে লাভবান হওয়ায় দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে লাউ চাষ।

জেলা কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, জেলায় এবার লাউয়ের চাষ হয়েছে ৭০-৮০ হেক্টর জমিতে, যা গতবারের তুলনায় ৩০ হেক্টর বেশি। বিঘাপ্রতি লাউ চাষ করতে কৃষকের খরচ হয়েছে ১০-১২ হাজার টাকা। বাজার দর ও চাহিদা ভালো থাকায় এক বিঘা জমিতে উৎপাদিত লাউ বিক্রি করে কৃষক ঘরে তুলছেন ৪০-৫০ হাজার টাকা।

মৌলভীবাজার, আলীপুর,পাঁচপাড়ার গ্রামের লাউ চাষী আব্দুল হান্নান ও গোলাম রসুল লালসবুজের কথা নিউজকে জানান, লাউ চাষ করে লোকসান গুণতে হয় না। প্রতি বিঘা জমিতে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা খরচ হয়। সেখানে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা লাভ হয় এ সবজি বিক্রি করে। তাছাড়া বাজারে সব সময় লাউয়ের চাহিদাও থাকে।

আব্দুর গফফার গাজী ও রেজাউল সরদার, টিপু গাজি গ্রামের ব্যবসায়ী ইমারত আলী লালসবুজের কথা নিউজকে জানান, আমি এখান থেকে লাউ কিনে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনাসহ বিভিন্ন স্থানে পাঠায়। রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলার মার্কেটে লাউয়ের চাহিদা সব সময় থাকে।

ফসল হিসেবে লাউ আবাদে কৃষক লাভবান হওয়ায় সবজির জেলা সাতক্ষীরা চাষিরা লাউ চাষ করে থাকেন। জেলা কৃষি কর্মকর্তারা চাষিদের প্রযুক্তিগত সহায়তা ও পরামর্শ দিচ্ছেন। তবে উৎপাদিত সবজি-ফসলের সংরক্ষণের জন্য একটি সবজি হিমাগার স্থাপন করবে এ প্রত্যাশা এলাকার কৃষকদের।