সর্বশেষ সংবাদ

মিয়ানমারে দীর্ঘস্থায়ী ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের সহায়তা দেবে না জাতিসংঘ

মিয়ানমারে ফিরে যাওয়া যেসব রোহিঙ্গা মুসলিম দেশটির আশ্রয় শিবিরে থাকবেন, তাদের যদি সেখানে অন্তরায়িত করে রাখা হয়, তবে কোনো মানবিক সহায়তা করবে না জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা।

রোহিঙ্গাদের প্রাথমিক প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার আগে এ নিয়ে ইউএনএইচসিআরের অভ্যন্তরীণ অবস্থান জানিয়ে বিতরণ করা একটি চিঠির বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এসব তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, রাখাইনের মুসলিম সংখ্যালঘুদের জন্য আশ্রয় শিবির দীর্ঘায়িত হলে ইউএনএইচসিআর তাতে সমর্থন দেবে না।

এ নিয়ে সংস্থাটির এক মুখপাত্রে কাছে জানতে চাওয়া হলে ফাঁস হওয়া নথি নিয়ে কথা বলবেন না বলে রয়টার্সকে জানিয়েছেন।

কয়েক হাজার রোহিঙ্গাকে মধ্য নভেম্বরে প্রত্যাবাসন শুরু করতে অক্টোবরের শেষ দিকে সম্মত হয় বাংলাদেশ ও মিয়ানমার।

যদিও জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সাহায্য সংস্থা জানিয়েছে, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার মতো নিরাপদ অবস্থা এখনও তৈরি হয়নি।

শরণার্থীদের জন্য মিয়ানমার সরকার ট্রানজিট কেন্দ্র স্থাপন করেছে। যদিও দেশটি বলেছে, এসব কেন্দ্র অস্থায়ী। কিন্তু রোহিঙ্গাদের অনেকের আশঙ্কা, এগুলো স্থায়ী হয়ে যাবে। কারণ রোহিঙ্গাদের চলাফেরায় সেখানে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

ইউএনএইচসিআরের চিঠি বলছে, ক্যাম্পের ভেতর এভাবে অন্তরায়িত থাকাবস্থায় তারা কয়েকটি ব্যক্তিগত সহায়তা সরবরাহ করবে না। তবে তারা যদি অস্থায়ীভাবে সেখানে থাকেন ও মুক্তভাবে চলাফেরার সুযোগ পান, তা হলে ভিন্ন কথা।

কূটনীতিকদের কাছেও এ চিঠি বিতরণ করা হয়েছে। এ ছাড়া এতেও বিভিন্ন সংস্থাকে সাহায্য না করতে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে চাওয়া হলে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ হটাই কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

error: লাল সবুজের কথা !!