মানিকগঞ্জ-২ আসনে নৌকার জন্য ভোট চাচ্ছেন কুলা মার্কার প্রার্থী গোলাম সারোয়ার মিলন

167
মানিকগঞ্জ-২ আসনে নৌকার জন্য ভোট চাচ্ছেন কুলা মার্কার প্রার্থী গোলাম সারোয়ার মিলন

মোহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম খান, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: মানিকগঞ্জ-২ আসনে শিল্পী মমতাজ বেগমের নৌকা মার্কার জন্য ভোট চাচ্ছেন কুলা মার্কার প্রার্থী গোলাম সারোয়ার মিলন। এত দিন তিনি ভোট চেয়েছেন নিজের জন্য – নিজের কুলা মার্কার জন্য। করেছেন জনসভা, গণসংযোগ, সাংবাদিক সম্মেলন, পথসভা ইত্যাদি। শুনিয়েছেন মানুষকে নানা আশা-আকাঙখার কথা। দেখিয়েছেন রঙ্গীন স্বপ্ন। বলেছেন মানিকগঞ্জ-২ আসন যথা দক্ষিণ মানিকগঞ্জ, হরিরামপুর ও সিংগাইরকে তিনি সিংগাপুর বানাবেন। ভরে ফেলবেন শিল্প-কারখানা দিয়ে। করে তুলবেন সমৃদ্ধ। বেকারদের হবে কর্মসংস্থান। এমনি হাজারো আশা-আকাঙখা আর স্বপ্ন দেখিয়েছেন মানুষকে। আর আজ তিনি নিজের কুলা মার্কার প্রচারণা বাদ দিয়ে উঠে পড়ে লেগেছেন কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের নৌকা মার্কার প্রচারণায়। জনগণকে উদ্বোদ্ধ করছেন নৌকা মার্কায় ভোট দিতে। বিষয়টি স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী সমর্থকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। তারা ফেলছে স্বস্থির নি:শ্বাস।

আজ ২৫ ডিসেম্বর- মঙ্গলবার বিকালে মানিকগঞ্জ-২ আসনের সিংগাইর উপজেলার মানিকনগর বাজারে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দেশবরেণ্য কন্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের এক নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৪টা বাজতেই জনসভায় হাজার হাজার জনতার ঢ্ল নামে। দীর্ঘ দীর্ঘ মিছিল জনসভায় অংশ নেয় নৌকা প্রতীক নিয়ে। বাজার মাঠ কানায় কানায় ভরে উঠে জনতার ভারে।

জনসভায় প্রধান আকর্ষণ মমতাজ বেগমের পাশে বিশেষ আকর্ষণ হয়ে বসে ছিলেন বাংলাদেশ বিকল্পধারা মনোনীত – কুলা প্রতীকের প্রার্থী, সাবেক শিক্ষা উপমন্ত্রী গোলাম সারোয়ার মিলন। তিনি বিকল্পধারা বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী হয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে কুলা প্রতীক নিয়ে এতো দিন নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে আসছিলেন। আজ আওয়ামী লীগের জনসভায়-নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মমতাজ বেগমের পাশে তাকে বসা দেখে উপস্থিত জনতা অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছিলো, কখন এবং কি বলবেন তিনি।

প্রধান আকর্ষণ মমতাজ বেগমের পূর্বে এলো কাঙখিত ব্যাক্তি গোলাম সারোয়ার মিলনের পালা। সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়ে তিনি বললেন,- “আমি শুধু এইটুকো বলতে চাই, আমি গোলাম সারোয়ার মিলন মহাজোটের শরীকদল। বিকল্পধারা বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কুলা প্রতীক নিয়ে প্রার্থী ছিলাম। মহাজোটের রাজনৈতিক সিদ্দান্ত অনুযায়ী আগামী দিনে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে, প্রধান মন্ত্রীর ভবিষ্যৎ বাংলাদেশকে উন্নয়ন-অগ্রগতি-সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষে, মহাজোটকে শক্তিশালী করার লক্ষে, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষে, আমরা এক সাথে নৌকার হয়ে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এখন যেহেতু আমার প্রার্থীতা-পদ প্রত্যাহার করার কোন সময় নাই, তাই আমি আজকে আনুষ্ঠানিক ভাবে মমতাজ বেগমকে মহাজোটের পক্ষ থেকে আমি তাকে নৌকা মার্কায় সমর্থন দিয়ে আপনাদের কাছে উদাত্ত আহ্বান যানাতে চাই- আসুন, আমদের আগামী ৩০ তারিখের নির্বাচনে প্রমাণ করে দেব, এদেশ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দেশ। এদেশ মানুষের পক্ষের দেশ। এদেশ শয়তানের পক্ষের দেশ নয়।

এদেশ যারা মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা করেছিল তাদের পক্ষের দেশ না। বন্ধুরা আমার! আমি শুধু এইটুকো উদাত্ত আহ্বান জানাবো, আমরা দল-মত-নির্বিশেষে এইবার মমতাজ বেগমকে সংসদে পাঠাতে চাই। আমি একটি স্বপ্নের কথা বলেছিলাম,যে স্বপ্ন! সিংগাইর-দক্ষিণ মানিকগঞ্জ-হরিরামপুর হবে সিঙ্গাপুর। মমতাজ বেগম আমাকে আশ্বাস দিয়েছে, যে মিলন ভাই আমি আপনার এ স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবো। (ভাষা শহীদ রফিক সেতুর) টোল মুক্ত করে, গ্যাস এনে, এখানে শিল্পায়নের মাধ্যমে যুব সমাজকে আগামী দিনে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়ে নৌকার অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখবেন এই প্রত্যাশা ব্যাক্ত করছি। মা-বোনেরা, ভাইয়েরা, তরুণেরা ৩০ তারিখে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে নৌকায় ভোট দিবেন, এই আশা রেখে আপনাদেরকে অভিনন্দন জানিয়ে আমার বক্তব্য শেষ করছি…!”

বিকল্পধারা বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী গোলাম সারোয়ার মিলনের এ বক্তব্যে উপস্থিত জনতার মাঝে এক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়।