সর্বশেষ সংবাদ

মানিকগঞ্জে বৃষ্টি বর্ষণে ইটভাটা মালিকদের ব্যাপক ক্ষতি

মোহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম খান, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জে বৃষ্টি বর্ষণে ইটভাটা মালিকদের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বৃষ্টিতে ভিজে নষ্ট হয়েছে পটের পর পট কাঁচা ইট। সন্তর হতে গলে-ভেঙ্গে পড়েছে সারি সারি শুকনো ইটের ঝেঞ্জি-সাঙ্গার। সেগুলো সরিয়ে পট পরিষ্কার করাই হয়েছে এখন ভাটা মালিকদের চিন্তার বিষয়।

মানিকগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় গড়ে উঠা ১৫০টিরও বেশী ইটভাটায় গত কয়েক দিনের বৃষ্টি বর্ষণে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এতে পটে থাকা লক্ষ লক্ষ কাঁচা ইট ভিজে নষ্ট হয়ে গেছে। বৃষ্টির পানিতে ভিজে-গলে-ভেঙ্গে পড়েছে সন্তরে রাখা সারি সারি শুকনো ইটের ঝেঞ্জি-সাঙ্গার। তাহাতে ইটভাটা মালিকদের যেমন লক্ষ লক্ষ টাকার ইট নষ্ট হয়েছে, তেমনি এ সকল গলা-ভাঙ্গা ইটের মাটি সরাতেও কোম্পানীগুলোকে লস গুনতে হবে লাখ লাখ টাকা। আর এ ৩/৪ দিন ধরেই মিল বন্ধ – ইট প্রস্তুত হচ্ছে না, এদিকে সীজনও শেষ হয়ে আসছে সে লোকসান তো আছেই।

এ বছর এমনিতে ইটের চাহিদা কম বলে দরও কম। ফলে কোম্পানীগুলো ইটের ন্যায্য দাম পাচ্ছে না। অপর দিকে আবার কয়লার দামও আগের তুলনায় অনেক বেশী। এ প্রসঙ্গে ইটাভাটা মালিক আব্দুল খালেক মাদবর বলেন, এ বছর এমনিতে ইটের দাম কম, আবার কয়লার দামও অনেক বেশী। তার উপর আবার বৃষ্টিতে যে ক্ষতি করলো, তাতে কম্পানিগুলোর লাখ লাখ টাকা লোকসান হলো।

বাংলাদেশ ইট প্রস্তুতকারী মালিক সমিতি, সিংগাইর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ও মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সদস্য সচিব মহিদুর রহমান বলেন, এই বৃষ্টিতে মানিকগঞ্জ জেলার ১৫০টিরও বেশী ইটভাটার প্রত্যেকটিকে গড়ে প্রায় ৭/৮ লাখ টাকা করে লোকসান গুনতে হবে। সে হিসেবে ১৫০টি ইটভাটার লোকসান দাঁড়ায় ১০,০০,০০,০০০ (দশ কোটি) টাকারও বেশী। যা’ ইটভাটা মালিকদের জন্য খুবই দু:খের বিষয়।

error: লাল সবুজের কথা !!