মহেশপুরে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক ডাঃ সাইফুল আটক

13

সেলিম রেজা,মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুরে উপজেলার নেপা ইউপির সেজিয়া খোদাবন্দে পাড়ায় চাচাতো বোনকে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী উর্মি খাতুন(১২) কে ধর্ষনের অভিযোগে ডাঃ সাইফুল (৩২) কে মহেশপুর থানা পুলিশ আটক করেছে।

শনিবার বিকালে সেজিয়া বাজার থেকে সাইফুলের নিজ ঔষধের ফার্মেসী থেকে তাকে আটক করা হয়।আটককৃত ধর্ষক সাইফুল সেজিয়া খোদাবন্দে পাড়ার ডাঃ নূরমোহাম্মদের ছেলে।ধর্ষিতা উর্মী খাতুন সেজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী।

মেয়েটি সাইফুলের চাচাতো বোন। উর্মী খাতুন ঐ গ্রামের আজিজ মিয়ার কন্যা।এলাকাবাসী জানান,উর্মী পেটের ব্যথার জন্য চাচাতো ভাই সাইফুলের ফার্মেসীতে ঔষধ নিতে আসলে সাইফুল তাকে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে দেয়,পড়ে মেয়েটি অজ্ঞান হয়ে গেলে,সাইফুল নিজ ফার্মেসীতে তাকে ধর্ষন করে।মেয়েটির জ্ঞান ফিরলে বুঝতে পারে যে তার সাথে অমানবিক কিছু হয়েছে।তার প্রচুর পরিমান রক্তক্ষরণ হতে থাকে।মেয়েটি কোনমতে বাড়িতে পৌঁছিয়ে মায়ের কাছে সব খুলে বলে।

মেয়েটির মা মেয়ের এমন অবস্থা দেখে দ্রুত চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালে নিয়ে যায়।উর্মী খাতুন এখনও চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।