মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে কেশবপুরে ফুলচাষী অঞ্জু সরকারের ফুল বিক্রয়ের টার্গেট প্রায় ২ লক্ষ টাকা

আজিজুর রহমান, কেশবপুর থেকে: কেশবপুরে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে ফুলচাষী অঞ্জু সরকারের ফুল বিক্রয়ের টার্গেট প্রায় ২ লক্ষ টাকা। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসকে সামনে রেখে মহা ব্যস্ত সময় পার করছেন ফুলের রাজধানী খ্যাত কেশবপুরের মূলগ্রামের ফুলচাষী অঞ্জু সরকার (ফুল বৌদি)।

ফুলের ক্ষেত থেকে সময়মত পর্যাপ্ত ফুল পেতে গাছ পরিচর্যায় ব্যাস্ত সময় পার করে চলেছেন তিনি। মূলগ্রাম এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে মাঠ জুড়ে ফুল আর ফুল। সেখানে রং বে-রঙ্গের গোলাপ, গাঁদাফুল, বেলিফুল, জারবেরা, গ্ডাডিওলাস, রজনীগন্ধা, হলুদগাঁধা, চন্দ্রমল্লি¬কাসহ নানা প্রজাতীর ফুল চাষ হচেছ। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ফুল বিক্রি করার র্টাগেট রয়েছে তার। আগামী ২৫ মার্চ থেকে মুলগ্রামের ফুলচাষী অঞ্জু সরকার (ফুল বৌদি) এ দিবসের ফুল বাজারে সরবরাহ করবে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট হতে ৪ বার জাতীয় স্বর্ণপদক প্রাপ্ত অঞ্জু সরকার (ফুল বৌদি) সাংবাদিকদের জানান, কেশবপুর উপজেলার মূলগ্রামে ৬ বিঘা ও মাগুরায় ২ বিঘা জমিতে ফুলের আবাদ করেছি। এবারের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসকে সামনে রেখে ২ লক্ষাধিক টাকার ফুল সরবরাহ করা হবে।

আশা করছি আমরা ভাল মূল্য পাবো। অঞ্জু সরকারের ছেলে রুপচাঁদ সরকার বলেন, কেশবপুর বাজারে ১টি সহ সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা বাজার ১টি, তালা বাজারে ২টি, পাইকগাছা বাজার ১টি, কপিলমুনি বাজার ১টি ও মাগুরা বাজারে ২টি শুভেচ্ছা ফুলঘর রয়েছে। এসব ফুলঘর থেকে ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার ফুল বিক্রি করার টার্গেট রয়েছে। এই ৬টি অঞ্চলের ফুলের চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে আমরা ফুল সরবরাহ করে থাকি। তাছাড়া বিয়ে, জন্মদিন, পূজাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমরা ফুল সরবরাহ করে থাকি। তিনি আরো বলেন, আমাদের ৮টি শুভেচ্ছা ফুলঘরে ২৪ জন কর্মচারী রয়েছে এবং পার্ট টাইম হিসাবে ২০ জন ছেলে মেয়ে লেখা পড়ার পাশা-পাশি অর্থ উপার্জনের জন্য আমাদের সাথে শ্রম দিয়ে থাকে

error: লাল সবুজের কথা !!