বয়সন্ধিকালের গল্পে এক ঝাঁক তারকা

বিনোদন ডেস্কঃ সম্প্রতি শেষ হয়েছে সত্য ঘটনা অবলম্বনে নানজীবা খানের রচনা ও পরিচালনায় পুর্ণদৈর্ঘ্যের ডকুফিল্ম ‘দি আনওয়ান্টেড টুইন’ এর শুটিং। ঢাকাই সিনেমার ও নাটকের একঝাঁক তারকা এই ফিল্মে অভিনয় করেছেন।

প্রামাণ্যচিত্রটিতে ৬ জেনারেশনের প্রতিনিধি হিসেবে দেখা যাবে দিলারা জামান, আফসানা মিমি, দিপা খন্দকার, বন্যা মির্জা, হোমায়রা হিমু ও আরজে ত্যাজ’কে। ,

এছাড়াও এই ফিল্মের চমক হিসেবে আছেন নায়িকা ববি হক, কাজী নওসাবা, তানহা তাসনিয়া, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, ড. এনামুল হক, শামস সুমন, সোহেল খান, শান্তা রহমান, অ্যানি খান, শিরিন আলম, রাজু আলীম, সাইফ সাইফুলসহ আরও অনেকে।

নির্মাতা নানজীবা বলেন, ‘আমি তারকা নয় অভিনয় শিল্পীদের নিয়ে এই কাজটি করেছি। এটি যমজ পরিচয়হীন দুটি শিশু ও বয়সন্ধিকালে সচেতনতা নিয়ে গল্প । ছবিটির শেষটা তথাকথিত ছবির মত না। বরং পর্দায় বাস্তবতা কে ফুটিকে তোলার চেষ্টা করেছি।’

নানজীবা জানালেন, ডকুফিল্মটির শেষে বিষয়টি নিয়ে আসাদুজ্জামান নূর, শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি,আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এভারেস্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদার এবং আস্ট্রেলিয়া, ভিয়েতনাম, নেপাল, ভূটান,শ্রীলংকাসহ মোট ১১ টি দেশের নাগরিকদের মতামত দেখা যাবে ।

প্রায় ১ বছরের গবেষনা ও ৬ মাসের প্রিপ্রোডাকশন শেষ করে পুরোদমে প্রস্তুতি নিয়ে কাজটি করেছেন নির্মাতা। প্রামাণ্যচিত্রটির সিনেমেটোগ্রাফার আমির হামজা ও পাভেল মাহমুদ জয়। সম্পাদনা করেছেন খুরশিদ আলম।

প্রামাণ্যচিত্রটি নির্মিত হচ্ছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টাইগার মিডিয়ার ব্যনারে। এসএমসি নোরিক্স ওয়ান নিবেদনে এটির কোস্পন্সর করেছে জীম’স কালেকশন। প্রযোজনা করেছেন ফয়সাল আনোয়ার। কন্টেন্ট সাপোর্ট পার্টনার হিসেবে আছে ‘ইউনিসেফ বাংলাদেশ’। নির্মাতা জানালেন শিগগিরই এটি হলে ও টেলিভিশনের পর্দায় দেখতে পাবেন দর্শক।

উল্লেখ্য, নির্মাতা নানজীবা প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্র ‘কেয়ারলেস’ নির্মাণ করেন মাত্র ১৩ বছর বয়সে। প্রথম প্রামাণ্যচিত্র ‘সাদা কালো’ পরিচালনার জন্য ‘ইউনিসেফের মীনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড’ অর্জন করেন। এরপর ‘গ্রো আপ’, ‘দি আনস্টিচ পেইন’ সহ পরিচালনা করেছেন আরো ৬টি শর্টফিল্ম ও প্রামাণ্যচিত্র।

error: লাল সবুজের কথা !!