সর্বশেষ সংবাদ

ব্লু হোয়েল এর চেয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে পাবজি

এক সময়ের আতংকের নাম ছিল ব্লু-হোয়েল গেম। তবে এর রেশ কাটলেও আরেক ভয়ঙ্কর নেশার গেম (পিইউবিজি বা পাবজি), বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় গেমগুলোর মধ্যে একটি। গেমটি জনপ্রিয়তা পেলেও গেমটিকে ঘিরে রয়েছে ব্যাপক সমালোচনা।

বিশ্বব্যাপী এই গেমটির কারণে ঘটছে ছোট-বড় নানা ঘটনা। সংবাদের শিরোনামেও আসছে এসব ঘটনা। গত বছর থেকে চলতি মাস পর্যন্ত পাবজি গেমসংক্রান্ত বিভিন্ন ঘটনার উদাহরণ বলে দেয় এই গেমটির কারণে মানসিক ভারসাম্যহীনতা যেমন বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি মৃত্যুর ঘটনাও ঘটছে।

রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে এসব ঘটনায় দায়ী করা হচ্ছে পাবজি গেমটিকে। পাবজি খেলে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে হাসপাতালে ৬ তরুণসহ পাবজি গেম খেলায় মায়ের বকুনেতে ১০ শ্রেণির ছাত্রের আত্মহত্যা, তেমনি অতিরিক্ত গেমটি খেলায় মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। এ ছাড়া গেমে থাকা বিভিন্ন চরিত্রকে অনুকরণ করতে গিয়ে প্রাণ হারানোর ঘটনাও রয়েছে অহরহ।

পাবজি গেম খেলে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে হাসপাতালে ৬ তরুণ!

জম্মুর এক ফিটনেস ট্রেনারসহ কয়েকদিনে আরও ৫ জন একই কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

সংবাদ সংস্থা UNI-এর প্রতিবেদন অনুসারে, জম্মুর এক ফিটনেস ট্রেনার ১০ দিন আগে পাবজি খেলতে শুরু করে। তবে তাঁর নাম প্রকাশ্যে আনেনি সংবাদ সংস্থা। সম্প্রতি অস্বাভাবিক আচরণ করতে শুরু করেন তিনি। শেষে নিজেকেই নানা ভাবে আঘাত করতে শুরু করেন ওই যুবক। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিজনরা।

খেলতে খেলতে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ৬ জন ভর্তি হয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, এই ৬ জন ছাড়াও আরও অনেকেই এই ধরণের সমস্যায় ভুগছেন। তবে তাদের পরিবার সমস্যার গুরুত্ব বুঝতে না-পারায় হাসপাতালে আনেননি। সেক্ষেত্রে সেই সব যুবকরা আরও বড় ঝুঁকির সামনে দাঁড়িয়ে আছেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

চীনে ১৩ বছরের কমবয়সীদের অনুমতি লাগবে অভিভাবকের
চীনে পাবজি ১৩ বছরের কম বয়সীদের জন্য যোগ হয়েছে ‘ডিজিটাল লক’। যা খুলতে অভিভাবকদের অনুমতি লাগবে বলে জানিয়েছে টাইমস নাউ নামে একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। গেম প্রকাশক প্রতিষ্ঠান ‘টিনসেন্ট’ মূলত তরূণদের গেম আসক্তি কমাতে এ পদক্ষেপটি নিয়েছে বলেও জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি।

এছাড়াও গেমটি খেলার সময়সীমাও নির্ধারণ করে দিয়েছে টিনসেন্ট। এর আগেও বেশ কয়েকবার গেমিংএর ক্ষেত্রে এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে টিনসেন্ট।

পাবজি গেম খেলায় মায়ের বকুনি, ১০ শ্রেণি ছাত্রের আত্মহত্যা
তেলেঙ্গানার সেকেন্দরাবাদের মালকজগিরি এলাকার ১ এপ্রিল এ ঘটনা ঘটে। পাবজির জেরেই আত্মহত্যা করল ১০ শ্রেণির এক ছাত্র। মর্মান্তিক এই ঘটনা তেলঙ্গানার সেকেন্দরাবাদের মালকজগিরি থানা এলাকার। তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মালকজগিরি থানার ইন্সপেক্টর কে সঞ্জীবা রেড্ডি জানিয়েছেন, ১৬ বছরের ছেলেটি তার বাবা-মার মোবাইল ফোনে পাবজি গেম খেলত। পরীক্ষা চলাকালীন অনলাইন গেম খেলায় সোমবার রাতে তার মা বকাবকি করেন।

এরপর ছেলেটি নিজের ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যান থেকে গলায় তোয়ালের ফাঁস দিয়ে ঝুলে পড়ে। ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে তার বাবা-মা দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখেন সে ঝুলছে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়। ভারতীয় ফৌজদারি দণ্ডবিধির ১৭৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

টানা ৪৫ দিন পাবজি খেলে মৃত যুবক!
পাবজি টানা ৪৫ দিন ধরে গেমটি খেলতে খেলতে ঘাড়ে ব্যথায় অসুস্থ হয়ে পড়ে মৃত্যু হল এক যুবকের।

ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার জগিতিয়ালের। জানাযায় ২০ বছর বয়সী ওই যুবক টানা ৪৫ দিন পাবজি খেলছিলেন। গেম খেলতে খেলতে হঠাতই ঘাড়ে অসম্ভব যন্ত্রণা শুরু হয় তাঁর। তড়িঘড়ি তাঁকে হায়দরাবাদের একটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়। সেখানে চিকিত্সা শুরু হলেও যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে মৃত্যু হয় ওই যুবকের।

পাবজি খেলতে খেলতে ট্রেনের ধাক্কায় প্রাণ হারান ২ জন
পাবজি খেলতে খেলতে এতটাই জ্ঞানশূন্য হয়ে পড়েন ওই দুই যুবক, যে ঘাড়ের ওপর এসে পড়া চলন্ত ট্রেন খেয়ালই করেননি তাঁরা। যার ফলে বেঘোরে খোয়া গেল দু’-দু’টো প্রাণ। শনিবার সন্ধেবেলা মহারাষ্ট্রের হিঙ্গোলিতে একটি বাইপাসের সামনে ঘটে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি।

মৃত দুই যুবকের নাম নাগেশ গোরে (২৪) এবং স্বপ্নিল অন্নপূর্ণে (২২)। রেললাইনের ধারে দাঁড়িয়েই পাবজি খেলছিলেন তাঁরা। সেই সময়েই তাঁদের পিষে দিয়ে গেল হায়দরাবাদ-আজমের দূরপাল্লার ট্রেন। পরে ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারাই তাঁদের দেহ খুঁজে পান বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পাবজির প্রভাবে ভবন থেকে লাফ দিয়ে চীনা বালকের মৃত্যু
পাবজি গেমটি একসঙ্গে বেশ কয়েকজন খেলার সময় কোনো খেলোয়াড় ভবন থেকে লাফ দিলে সে বেঁচে থাকে। কাল্পনিক এই ঘটনাটি প্রত্যক্ষভাবে পরখ করতে চেয়েছিল চীনের হায়মেনের ১৩ বছরের এক বালক। এতে প্রাণ হারাতে হয়েছে তাকে।

বালকটির মায়ের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পাবজি গেমের নেশায় বুঁদ হয়ে ছিল তার ছেলে। গেমে থাকা এক চরিত্রের মতো সে একটি সুউচ্চ ভবন থেকে লাফ দেয়। নিহত বালকটির ধারণা ছিল, সেই ভবন থেকে লাফ দিয়ে সে বেঁচে থাকবে, যা সে দেখেছে পাবজি খেলার সময়।

পাবজি বেশি খেলায় প্রেমিককে কোপালেন প্রেমিকা
ঘটনাটি ঘটে গত বছরের মার্চে। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, বারবের ইমিলি নামের এক নারী ছিলেন এই ঘটনার মূল হোতা।

ইমিলির ধারণা ছিল, তার প্রেমিক তার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করছে। এ ছাড়া তার প্রেমিক বেশি পাবজি গেম খেলে। এই কারণে তিনি তার প্রেমিককে জাপানি স্টাইলের তরবারি দিয়ে কুপিয়ে আঘাত করেন।

ব্লু হোয়েল এর চেয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে পাবজি

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর উন্মোচন করা হয় মাল্টি-প্লেয়ার এই গেইমটি। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের খেলোয়াড়রা একত্রিত হয়ে বিভিন্ন যুদ্ধে অংশ নিয়ে থাকে। গত ফেব্রুয়ারিতে পাবজি নিষিদ্ধের দাবিতে ভারতের আদালতে মামলা করে ১১ বছর বয়সী আহাদ নিজাম।

error: লাল সবুজের কথা !!