বেকার সম্রাট এখন সাফল্যের স্বর্ণ শিখরে

27

মাহবুবুজ্জামান সেতু, নওগাঁ প্রতিনিধি: বেকার যুবক হারুন অর রশীদ ওরফে সম্রাট এখন সাফল্যের স্বর্ণ শিখরে। নওগাঁ জেলার অন্তর্গত নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউপির কামালপুর গ্রামের ধনাঢ্য পরিবারের একমাত্র সন্তান। তিনি বেশী লেখাপড়া করতে না পারলেও বেকারত্বকে জয় করে সাফল্যের স্বর্ণ শিখরে পৌঁছেছেন। তিনি ২০০২ সালে এসএসসি, ২০০৪ সালে এইচএসসি এবং পরবর্তী সময়ে কৃষি বিষয়ে ডিপ্লোমা পাশ করেন।

এরপর বেকার জীবন নিয়ে জড়িয়ে পড়েন বৈবাহিক জীবনে। অবশেষে তিনি দেখলেন বেকারত্বের অন্ধকার। অন্ধকার থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করলেন বাস্তবজীবনের ছবি আঁকতে।

কিভাবে সাফল্য অর্জ করা যায়। তিনি সবসময় একটি কথা বলতেন, “আমি বিশ্বাস করি যে স্বপ্ন ঘুমাতে দেয়না,সেটাই হলো প্রকৃত স্বপ্ন।” এই বাক্যকে পুঁজি করে কিভাবে বেকারত্বের অভিশাপ থেকে বেরিয়ে এসে সমাজকে কিছু দেওয়া যায়, সে চিন্তায় তিনি বিভোর থাকতেন।

অবশেষে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সমাজ ও পরিবারে অজান্তে দক্ষিণ কোরিয়ার উদ্দ্যেশে পাড়ি জমান। ৩ বছর পর ফিরে আসেন নিজ দেশে। ফিরে এসেই “সম্রাট এন্ড সন্স কর্পোরেশন” নামে ৩ টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান চালু করেন। এগুলো হলো মেসার্স কোরিয়া মটরর্স, কোরিয়া ইলেকট্রিক এন্ড ইলেকট্রনিক্স ও ইফাত গ্রুপের কোরিয়া মটরর্স থ্রি-হুইলার অটো ও সিএনজি নামে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান চালু করেন।

এছাড়াও কোরিয়া এলপিজি ষ্টেশন এন্ড কনভার্সন চালু করতে যাচ্ছেন। এসব প্রতিষ্ঠানে তিনি ব্যবস্থাপক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করে অনেক বেকার যুবকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছেন।

তিনি সৎ যোগ্য ও ধার্মিক মানুষ হিসেবে সমাজে পরিচিত। এখন তিনি সমাজের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে অংশগ্রহণ করেন। কেউ হাত বাড়িয়ে বঞ্চিত হন না এই সমাজ সেবক সম্রাট এর কাছ থেকে। তিনি এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে তার সাধ্যমতো সহযোগিতা করে থাকেন। এমনকি গরীব অসহায় মানুষের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতা করাও তার অন্যতম কাজ।