বর্ষাকালে রোগবালাই থেকে সুরক্ষিত থাকতে যা খাবেন

121

অনলাইন ডেস্ক ।। বর্ষাকালে ছোটবড় সবাই নানা অসুখবিসুখে আক্রান্ত হন। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ায় সর্দি-কাশি, জ্বর, পেটের সমস্যা, হজমে সমস্যা,ডায়েরিয়া, টাইফয়েড, চামড়ায় বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় এই সময়। এই সময় চাই পারফেক্ট ডায়েট। তাই সুস্থ থাকতে পাতে রাখুন এই খাবার।

দুধ-হলুদ
বাঙালির রান্নাঘরের বহুল প্রচলিত মসলা হলুদ। এই সাধারণ হলুদই আপনাকে দিতে পারে বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি। হলুদে থাকা কারকিউমিন শরীরের সংক্রমণ বাসা বাঁধতে দেয় না। এছাড়াও কারকিউমিন আর্থ্রাইটিসের প্রতিরোধে সাহায্য করে। হলুদ খেলে অবসাদ দূর হয়। হলুদ খাবারের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর করে। রোগ প্রতিরোধ ক্শমতা বাড়ায়। তাই বর্ষাকালে দুধে হলুদ মিশিয়ে খেলে ভালো ফল পাবেন।

লেবু
ভিটামিন সি এর ভরপুর উৎস লেবু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে দারুণ ভূমিকা রাখে। লেবুতে থাকা বায়োঅ্যাকটিভ যৌগিক ও ফ্ল্যাভোনয়েডের কারণে এটা হতে পারে আপনার বর্ষার ডায়েটে একটি সুপারফুড।ডাল, সালাদ কিংবা শাকসবজি- বর্ষায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে যেকোনো খাবারের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেতে পারেন।

রসুন
স্বাস্থ্যরক্ষায় রসুন খাওয়ার প্রচলন বহু দিনের। রসুনে আছে অ্যান্টিফাঙ্গাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ। হৃদরোগ প্রতিরোধেও রসুন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাই বর্ষাকালে সুস্থ থাকতে পাতে রাখুন রসুন।

আদা
কথায় আছে, ‘প্রাতে খেলে নুন-আদা, অরুচি আর থাকে না দাদা’। আদায় রয়েছে পটাশিয়াম, আয়রণ, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালশিয়াম, ফসফরাস, সোডিয়াম, জিংক, ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন এ, বি৬, ই ও সি এবং অ্যান্টি–ব্যাকটেরিয়াল এজেন্ট ও অ্যান্টি–ইনফ্লামেটরি এজেন্ট । আমাশয়, পেটফাঁপা, পেটব্যথার সমস্যায় আদা উপকারী। এছাড়া গলা ব্যথা কিংবা কাশির ক্ষেত্রে গরম পানিতে আদা ফুটিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।

মশলা চা
ঝুম বৃষ্টিতে ধোঁয়া ওঠা এক কাপ চা কিংবা কফি-বাঙালির বর্ষাযাপনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তবে এই চা একটু অন্যভাবে বানালে বর্ষাযাপনের পাশাপাশি থাকতে পারবেন সুস্থও। চা স্বাস্থ্যের জন্য এমনিতেই ভালো। আর চায়ের সাথে যদি মেশে দুধ, এলাচ তাহলে সেই চায়ের স্বাস্থ্যগুণ বেড়ে যায় বহুগুণ। তবে দুধ চা খাওয়া কতটা যুক্তিযুক্ত সেই নিয়ে তর্ক থেকেই যায়। তাই চায়ে লবঙ্গ, এলাচ, কাবাবচিনি, আদা আর চিনির বদলে মধু-ব্যস বর্ষায় সুস্থ থাকার নিদান আপনার হাতের মুঠোয়।