পুলিশের ধাওয়ায় প্রাণ গেলো মাহেন্দ্র চালকের

622

মো. জাবের হোসেন, মো. শাহিনুর রহমান : পুলিশের ধাওয়া খেয়ে দ্রুত গতিতে মাহেন্দ্র চালাতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে এক মাহেন্দ্র চালক। স্বজনদের অভিযোগ উঠেছে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই মাহমুদের ধাওয়া খেয়ে সামাদের মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (২৭ জানুয়ারী) সকালে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই মাহমুদ মাহেন্দ্র চালকদের উপর চাঁদার দাবিতে তাড়া করে। এসময় চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির মাহমুদ মোটরসাইকেলে করে ধাওয়া করে মাহেন্দ্র চালককে পাটকেলঘাটা হারুন-অর-রশিদ কলেজের সামনে গেলে মোটরসাইকেল সামনে ঘুরিয়ে দিয়ে দাঁড়ায়। মাহেন্দ্র চালক সেসময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে গিয়ে মাহেন্দ্র পাল্টি খেয়ে তার বুকের উপর ওঠে। জায়গায় মাহেন্দ্র চালক সামাদ মৃত্যুবরণ করেন।

মাহেন্দ্র চালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাজিব বিশ্বাস মোবাইলে এ প্রতিবেদককে জানান, দীর্ঘদিন যাবত চুকনগর হাইওয়ে ফাঁড়ির এএসআই মাহমুদ অবৈধভাবে তাদের কাছে চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা না দেওয়ার আজ সকালে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসএসআই মাহমুদ মাহেন্দ্র চালকদের তাড়া করে।

নিহত মো. আব্দুস সামাদ মোড়ল পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা ইউনিয়নের মৃত আছির উদ্দিন মোড়লের ছেলে। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সেই সাথে সাধারণ জনগনের দাবি চুকনগর পুলিশ ফাঁড়ির এসএসআই মাহমুদের এহেন কৃতকর্মের যথাযথ শাস্তি হোক।

উল্লেখ্য ২০১৮ সালে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর হাইওয়ে (প্রস্তাবিত থানা) পুলিশের এএসআইসহ তিনজন পুলিশকে প্রত্যাহার করা হয় বিভিন্ন অভিযোগে।

চুকনগর হাইওয়ে পুলিশের চুকনগর-সাতক্ষীরা, চুকনগর-পাইকগাছা, চুকনগর-খুলনা ও চুকনগর-যশোর আঞ্চলিক মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহনের কাগজপত্রাদি পরীক্ষা এবং সব ধরনের ট্রাক ও পিকআপে অবৈধ স্টীকার লাগিয়ে মাসোহারা আদায়ের নামে সীমাহীন চাঁদাবাজি ও জন হয়রানিসহ নানাবিধ অনৈতিক কর্মকান্ডের দায়ে ফাঁড়ির (ক্যাশিয়ার) এটিএসআই ইমদাদুল হক, এএসআই মাহফুজুর রহমান ও কন্সটেবল সোহেল রানাকে সেসময় প্রত্যাহার করা হয়।

মাহেন্দ্র চালক সামাদের নিহতের বিয়ষে ডুমুরিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা যায়, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না।কারন চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির যিনি দায়িত্বে আছেন তার আন্ডারে হাইওয়ে ফাঁড়িটি।ওসি এসময় আন্তরিকভাবে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জের মোবাইল নম্বরটি প্রদান করে তার সাথে কথা বলার জন্য বলেন।

চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জের সাথে কথা বলে জানা গেছে,তিনি ফাঁড়িতে না থাকায় কোনো ঘটনা এখনো সঠিক জানতে পারেন নি।তবে তিনি ঘটনাটি শুনেছেন মোবাইলে।তিনি দ্রুত ফাঁড়িতে গিয়ে ঘটনার বিস্তারিত না জেনে কিছু বলতে পারছেন না।

এ বিষয়ে পাটকেলঘাটা থানা অফিসার ইনজার্জ (ওসি) ওয়াহিদ মুর্শেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন বলেন, মাহেন্দ্র চালকের মৃত্যু হয়েছে। তার লাশ এখন পাটকেলঘাটা থানায় আছে। তবে ঘটনার সাথে পুলিশের সম্পৃক্ততা আছে কিনা জানতে চাইলে বলেন, তিনিও লোকমুখে শুনেছেন পুলিশের ধাওয়া খেয়ে মাহেন্দ্র চালকের মৃত্যু হয়েছে। তবে ঘনটার সত্যতা জানতে গেলে তদন্ত না করে কিছু বলা সম্ভব হবেনা। নিহতের লাশ ময়না তদন্ত হবে কিনা প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, নিহতের পরিবারের সদস্যরা আছেন। তারা যেটা সিদ্ধান্ত নিবেন সেটি হবে।