সর্বশেষ সংবাদ

পাটকেলঘাটাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি উপজেলা বাস্তবায়নের ঘোষনা দেওয়া হোক !

মো.রিপন হোসাইন,পাটকেলঘাটা:  মহাকবি মাইকেল মধুসদূন দত্তের স্থৃতি বিজড়িত কপোতাক্ষের তীর ঘেসে গড়ে উঠা ঐতিহ্যবাহী পাটকেলঘাটা থানাঞ্চল। সময়ের সাথে সাথে কালের পরিক্রমায় এ অঞ্চলের গ্রামীন অবকাঠামো পরিবর্তন হয়েছে। তথ্যানুন্ধানে দেখা গেছে, কপোতাক্ষের তীরবর্তীতে নৌযানের মাধ্যমে সোনালী আশ পাটের আনা নেওয়া থেকেই পাটের ঘাট, অতঃপর পাটকেলঘাটায় পরিণত হয়। সময়ের প্রেক্ষাপটে হারিয়েছে অতীত সুখময় ইতিহাস, হারিয়েছে ঐতিহ্য, জন্মেছেন রাজনীতিবিদ, শিক্ষাবিদ, আইনজীবি, ডাক্তার, শিক্ষক সহ সমাজের বহু জ্ঞানী গুণী ব্যক্তিবর্গ।

পাটকেলঘাটা বাজারকে ঘিরে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন ব্যাংক, বীমা, সংস্থা ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান। সুনামের সাথে উত্তোরোত্তর বৃদ্ধিতে এগিয়ে যাচ্ছে পাটকেলঘাটা কেন্দ্রিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো। অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে এ অঞ্চলে জনসাধারণ। সরকারী পৃষ্ঠপোষকতায় না থেকে শিক্ষিত বেকার যুবকরা গড়ে তুলেছেন একাধিক বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন ধরনের খামার সহ আত্মনির্ভরশীল কর্মসংস্থান। আয়তনের দিক থেকে পাটকেলঘাটা বাজার যেন কমতি নেই। এ অঞ্চলের ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে থানা প্রতিষ্ঠিত হয়। গড়ে উঠেছে পাটকেলঘাটার প্রাণকেন্দ্র।

সরকার প্রতিবছর পাটকেলঘাটা বাজার থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে। এতে দেশ যেমন অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে তেমনি পাটকেলঘাটাবাসীর উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় ধাবিত হচ্ছে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে ইতোমধ্যে ৫/৬ টি ব্যংক, একাধিক বীমা, বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থার মতো প্রতিষ্ঠান এ অঞ্চলের মানুষের খেদমতের জন্য গড়ে উঠেছে। ঋণ সুবিধা নিয়ে পাটকেলঘাটার অসংখ্য বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান উত্তোরত্তর তাদের ব্যবসা বানিজ্য সম্প্রসারিত করে চলেছে। পাশাপাশি অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হয়ে তারা পুনরায় আমানত হিসেবে অর্থ সঞ্চয় করছেন। বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা প্রতিনিয়ত এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন আনতে অনেক সময় বিনা সুদে ও ঋণ প্রদান ও জরাজীর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো উন্নয়নের ছোয়া দিয়ে নতুনত্বের আস্বাদ গ্রহণ করছেন বলে জানা যায়। রয়েছে কপোতাক্ষের প্রাণকেন্দ্রে উপজেলা ভূমি অফিস। জমিজমা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ছুটে চলেছেন আপামর জনসাধারণ।

অনেক গুনী ব্যক্তির জন্ম পাটকেলঘাটায়, সমাজ বিনির্মাণে যাদের রয়েছে অনেক অবদান। স্থানীয় হাসপাতাল, ক্লিনিক, কমিউনিটিতে আপামর জনসাধারণ পেয়ে থাকেন নিরন্তর সেবা দিয়ে যাচ্ছে। সাতক্ষীরা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির সদর দপ্তরটিও পাটকেলঘাটার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত। বৈদ্যুতিক সেবায় গড়ে উঠেছে একাধিক কোম্পানী, বেকারী প্রতিষ্ঠানসমুহ। পাটকেলঘাটাঞ্চলের অনেক ছাত্র ছাত্রী আজ দেশ সেবায় দেশের বিভিন্ন প্রান্তরে নিয়োজিত, বিগত কয়েক মাস আগে কপোতাক্ষ পাড়ে তালের বীজ বপনের আড়ম্বরপুর্ণ অনুষ্ঠানে তৎকালীন সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক, বর্তমানের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে যুগ্নসচিব আবুল কাশেম মোহাম্মদ মহিউদ্দিন তিনি তার দৃঢ কন্ঠে বলেছিলেন, পাটকেলঘাটার আশপাশ আমি ঘুরে দেখেছি। একটি উপজেলা করতে গেলে যা যা প্রয়োজন পাটকেলঘাটায় তার কোনো কমতি নেই। তিনি বলেছিলেন, আপনারা এগিয়ে যান, আমি উপজেলা করতে সর্বাত্বক সহযোগিতা করব।

এতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সহ এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। এ বিষয়ে পাটকেলঘাটার প্রাণকেন্দ্রে সরুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান এই প্রতিবেদককের সাথে একান্ত কথা হলে তিনি বলেন, আজ বৃহস্পতিবার খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন ও জেলা প্রশাসক ইফতেখার হোসেন মহোদয় কপোতাক্ষ নদের তীরে বৃক্ষরোপন ও মাদক বিরোধী সমাবেশ সূধী সমাবেশ করবেন। তিনি আরো বলেন, উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় আজ পাটকেলঘাটায় উপজেলার যৌক্তিক দাবিতে পরিণত হয়েছে। এতে আমাদের সকলের ঐক্যবদ্ধ শক্তিতে পরিণত করতে হবে।

error: লাল সবুজের কথা !!