পরকীয়া প্রেমের টানে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি এক সন্তানের জননী

191

বরিশাল থেকে ফিরে আজিজুর রহমান: ঢাকা শহর থেকে এক সন্তানের জননী পরকীয়া প্রেমের টানে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছে। কুমিল্লা জেলার তালবাড়িয়া গ্রামের আওয়াল সরদারের ছেলে আব্দুর রহমান (৩৫) সাংবাদিকদের জানান, ২০০৮ সালে মে মাসে বরিশাল জেলার চলাচিপা উপজেলার গজিয়া গ্রামের আমীর গাজীর মেয়ে রেবেকা খাতুন (৩০) এর সাথে আমার বিবাহ হয়।

বিয়ের ৪ বছর পর আমি আমার স্ত্রীকে নিয়ে গার্মেন্টে কাজ করিতে ঢাকা শহরে চলে আসি। সেখানে থাকা অবস্থায় আমার স্ত্রী সিলেট জেলার হবিগঞ্জের কাঞ্চন আলীর ছেলে সবুজ হোসেনর সাথে মোবাইল ফোনে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত ১৩ জানুয়ারি সকালে কাউকে কিছু না বলে সবুজ হোসেন সাথে আমার স্ত্রী সন্তান নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছে এবং আমার মেয়ে খুশি খাতুন (১৪) কে একটি ছেলের সঙ্গে বিবাহ দেয়। সবুজ হোসেনের স্ত্রী গার্মেন্ট কর্মী মনিরা খাতুন সাংবাদিকদের জানান, আমার স্বামীর পরকীয়া প্রেমের প্রতিবাদ করায় প্রায় সময় আমাকে মারপিট করত ১৩ জানুয়ারি সকালে আমাকে এক দফা মারপিট করে রেবেকা খাতুনকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আব্দুর রহমান থানায় কোন অভিযোগ করেনি। আব্দুর রহমান দ্রুত স্ত্রী সন্তানকে ফিরে পেতে উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছে। যদি এদের কেউ খোঁজ পেয়ে থাকের তা হলে ০১৯৭১১৫৪১৩০ মোবাইফোনে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেছে আব্দুর রহমান। এ ব্যাপারে বক্তব্য নেওয়ার জন্য রেবেকা ও সবুজ হোসেনের মোবাইল ফোনে বার বার ফোন দেওয়া হলেও ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।