দুর্নীতির আতুর ঘর পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি!

115

এইচ এম মাইনুল ইসলাম টিটু : পটুয়াখালীতে গ্রামীণ জনপদের ঘরে ঘরে পল্লী বিদ্যুৎ সংযোগে গ্রহকদের কাছ থেকে দফায় দফায় চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এলাকা পরিচালক থেকে শুরু করে জেলা-উপজেলা পর্যায়ের পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা জড়িত।কয়েক দিনের অনুসন্ধানে এমন তথ্য বেড়িয়ে এসেছে।

কুয়াকাটা পৌরসভার বাসিন্দা মোঃ নজরুল ইসলাম খাঁন , বশির সরদার , হানিফ সরদার , সহ একাধিক গ্রাহক অভিযোগ করে বলেন, সংশ্লিষ্ট বিদ্যুৎ সমিতির কিছু লোকজন নুতন সংযোগ দেয়ার জন্য অফিসের খরচ বাবদ তাদের কাছ থেকে দুই দফায় গ্রাহক প্রতি ৫০০-১০০০ হাজার টাকা।কোনো গ্রাহক এ বিষয়েআপত্তি জানালে, বিদ্যুৎ সংযোগের তালিকা থেকে তাদের নাম কেটে দেয়ার ভয় দেখানো হয়।

দফায় দফায় চাঁদা দেওয়ার পরও কাপালে জুটেনি বিদ্যুৎতের আলো।পটুয়াখালী জেলাপল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার জানান,“ প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রতি অনুযায়ী ২০১৯ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পল্লী বিদ্যুৎ কাজ করে যাচ্ছে। সদস্য ফি মাত্র ৫০ এবং মিটার বাবদ ৪৫০ টাকা নির্ধারণ রয়েছে। এছাড়া সরকার গ্রাহকের কাছ থেকে কোনো অর্থ নিচ্ছে না। মাঠপর্যায়েএকটি চক্র মিথ্যা কথা বলে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা ওঠাচ্ছে।এমন অভিযোগ আমাদের কাছে এসেছে। এবিষয়ে তদন্ত চলছে এবং চক্রটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।