সর্বশেষ সংবাদ

দুপুরে হোক বা রাতে, পটলের দো পেঁয়াজা থাক পাতে

এখন বাজারে পটলের ছড়াছড়ি। তাই প্রতিদিনই পটলের কোনও না কোনও পদ বানিয়ে ফেলাই যায়! পটলের নানা স্বাদের পদ আমরা খেয়েছি। আলু-পটলের তরকারির মতো রোজকার পদ যেমন বানানো যায়, তেমনই দই পটল বা পটলের দোলমার মতো বাহারি পদও বানিয়ে ফেলা যায় স্বাদ বদলের জন্য। আজ শিখে নেওয়া যাক পটলের একেবারে ভিন্ন স্বাদের একটি পদ রান্নার কৌশল।

এই রান্নায় উপকরণ লাগবে মাত্র ৩-৪টি, সময় লাগবে বড়জোড় ২০-২৫ মিনিট। সামান্য তেলেই রান্না করা যাবে এই পদ। গরম গরম ভাত বা পোলাওয়ের সঙ্গে তো বটেই, রুটি, লুচি অথবা পরোটার সঙ্গেও জমিয়ে খাওয়া যাবে মুখরোচক এই পদটি। এ বার জেনে নিন মুখরোচক পটলের দোপেঁয়াজা তৈরির সহজ রেসিপি।

পটলের দোপেঁয়াজা বানাতে লাগবে:—

৫০০ গ্রাম পটল,

১ কাপ পেঁয়াজ কুচি,

স্বাদ মতো কাঁচা লঙ্কা কুচি,

আন্দাজ মতো ধনেপাতা কুচি,

স্বাদ মতো নুন,

আধা চামচ হলুদ,

আধা চামচ (স্বাদ মতো) লঙ্কার গুঁড়ো,

আন্দাজ মতো তেল (সাদা তেল ব্যবহার করতে পারেন)।

 

পটলের দোপেঁয়াজা বানানোর পদ্ধতি:—

পটলের খোসা ছাড়িয়ে দু’ টুকরো করে কেটে নিন।

প্যানে আন্দাজ মতো তেল গরম করে এতে লম্বা লম্বা করে চিরে কাঁচা লঙ্কা দিয়ে দিন। কাঁচা লঙ্কা থেকে সুন্দর গন্ধ ছড়ালে পেঁয়াজ আর সামান্য নুন ছড়িয়ে দিন।

পেঁয়াজ সামান্য হলদেটে হয়ে এলে পটল দিয়ে দিন, সঙ্গে হলুদ আর লঙ্কা গুঁড়ো। এ বার মাঝারি আঁচে ভাজতে থাকুন। ঢাকনা দেবেন না, শুধু মাঝে মাঝে একটু নেড়ে দিয়ে ভাজলেই হবে। খেয়াল রাখতে হবে, পেঁয়াজ যেন পুড়ে না যায়।

মিনিট পনেরো পর পটল সেদ্ধ হয়ে গেলে সামান্য ধনেপাতা ছড়িয়ে (না-ও দিতে পারেন) আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। ব্যস, এ বার গরম গরম পরিবেশন করুন জিভে জল আনা পটলের দো পেঁয়াজা।

error: লাল সবুজের কথা !!