দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনা সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে – ইসমাত আরা সাদেক

19

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি:
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক বলেছেন, নৌকার সরকার ক্ষমতায় থাকলে আপনাদের বাকি চাহিদাটুকুও পূরন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় আছে তাই আপনারা এসব কিছু পাচ্ছেন। উন্নয়নের জন্য এবং ভালো থাকতে নৌকার কোন বিকল্প নেই। বি এন পি ক্ষমাতায় থেকে কোন উন্নয়ন করেনি। তারা চুরি, ডাকাতি, খুন, মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে। বাসে আগুন দিয়েছে।

আপনারা আমাকে নয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। কারন শেখ হাসিনার সরকার ছাড়া দেশের উন্নয়ন হবে না। প্রয়াত সাবেক শিক্ষামন্ত্রী এ এস এইচ কে সাদেক সাহেবের উন্নয়নের পর আপনারা সাদেক সাহেবের ভক্ত হলেন এবং বিগত নির্বাচনে আপনারা নৌকায় ভোট দিয়েছিলেন। আজ আপনাদের উপস্থিতি দেখে আমার খুব ভালো লেগেছে সেজন্য আপনাদের ধন্যবাদ। কেশবপুর একসময় অবহেলিত ছিলো সেই কেশবপুর এখন উন্নত এলাকা হিসেবে পরিনত হচ্ছে। আমি অনেক কাজ করেছি। বিদ্যুত, রাস্তা, স্কুল-কলেজের বিল্ডিং করা, কর্মসংস্থানের জন্য ট্রেনিং সেন্টার, অর্থনৈতিক জোনসহ আপনাদের উন্নয়নের চেষ্টা করেছি এবং করছি। দরিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনা সরকার নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে শতভাগ বিধবা,বয়ষ্ক ও প্রতিবন্ধিদের ভাতা প্রদান করা হবে। সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে শনিবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্তর সভাপতিত্বে বয়ষ্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে কার্ড বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক এ সব কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি তপন কুমার ঘোষ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সংগঠনিক সম্পাদক শেখ এবাদত সিদ্দিকী বিপুল, গৌতম রায়, যশোর জেলা (পিপি) এ্যাড. রফিকুল ইসলাম পিটু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক কাজী আজহারুল ইসলাম মানিক৷

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জন-প্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব মোঃ মঞ্জুরুল হাফিজ, প্রতিমন্ত্রীর ছেলে তানভীর সাদেক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মিজানূর রহমান, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নাসিমা আক্তার সাদেক, সুফলাকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ ,হাবিবুর রহমান ও ছাত্রলীগের নেতা খন্দকার আব্দুল আজিজ৷ অনুষ্ঠান শেষে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক ইউনিয়নের ২৩৭ জন বয়ষ্ক,৭২ জন বিধবা ও ৭২ জন প্রতিবন্ধিদের মাঝে বিনামূল্যে কার্ড বিতরন করেন।