ডোবা থেকে বাজারের প্যাকেটে মোড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধার

13

বিশেষ প্রতিবেদকঃ আশরাফুল মাখলুকাত হিসেবে মানুষকে দুনিয়ায় সৃষ্টি করে পাঠিয়েছেন মহান সৃষ্টিকর্তা।
অর্থাৎ সৃষ্টিকূলের সর্বশ্রেষ্ঠ জীব হিসেবে দুনিয়া ও সমাজ জীবনে মানুষই সেরা।আর সেই মানুষের গর্ভজাত নবজাতক সন্তানের লাশ বাজারের প্যাকেটের ভিতর মোড়ানো অবস্থায় ভাসছে ডোবা বা পুকুরের পানিতে?তাহলে কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় মনুষত্ব্য,পিতৃত্ব্য ও মাতৃত্বের বন্ধন?
মনুষত্ব্য আজ কোথায়?
ভাবনাতে আনতেও বড় কষ্ট হয় এই মনুষ্য জগত নামে কিছু মনুষত্ব্যহীন মানুষের এমন পরিচয়ে- বলে আক্ষেপ করেন স্থানীয় সচেতন মানুষেরা।

জানা গেছে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলাধীন ডোবা থেকে প্যাকেটে মোড়ানো এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার হয়েছে।কোন এক নারীর গর্ভে ধারণ করে ডোবায় ভাসা নবজাতকের লাশটি কন্যা সন্তান বলে জানা যায়।
২০ জুলাই শুক্রবার সকালে উপজেলার সোনাবাড়িয়া গ্রামের বারিকের মোড় নামক রাস্তার ধারে একটি ডোবা থেকে ওই লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

জানা গেছে- শুক্রবার সকালে সোনাবাড়িয়ার বারিকের মোড় থেকে সিংগা রাস্তার পশ্চিম পাশের ডোবায়
দড়ি দিয়ে মুখ বাধা অবস্থায় একটি বাজার করা প্যাকেট ভাসতে দেখে স্থানীয়রা এগিয়ে যায় এবং তারা
লাঠি দিয়ে টেনে এনে উপরে তুলে প্যাকেটটি খুলে দেখে মৃত নবজাতকের লাশ। লাশটি কিছুটা বিকৃত ও ফুলে ছিলো। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়।
স্থানীয়দের ধারণা- নবজাতকের লাশটি কোন অবৈধ সম্পর্কের ফলশ্রুতি।

কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মারুফ আহম্মেদ সাংবাদিকদের জানান- ‘নবজাতকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এবং আইনি প্রক্রিয়া শেষে স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বরদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’
তিনি আরো জানান- ‘এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। তদন্ত করা হচ্ছে আশপাশের এলাকায় কোন সন্তান ডেলিভারির ঘটনা ঘটেছে কিনা।