ঝিনাইদহে বোর মৌসুমে চাউল সংগ্রহে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের পকেটে গেল ৩ লক্ষাধিক টাকা

1

সাহিদুল এনাম পল্লব, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি : ঝিনাইদহে সদ্য যোগদান কৃত জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নকীব সাদ সাইফুল ইরলামের বিরুদ্ধে ২০১৯ অর্থ বছরে বোর মৌসুমে চাউল সংগ্রহের ২ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা ঘুষ বাণিজ্য করার অভিযোগ উঠেছে।

ঝিনাইদহ জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক অফিস সুত্রে জানা যায় যে এ বছর বোর মৌসুমে ৬ টি উপজেলা থেকে ৪৩১ জন মিলারদের মাধ্যমে ১৫ হাজার ৯ শত ২৭ মেট্রিক টন সিদ্ধ এবং ২ জন মিলারের নিকট থেকে ২৩৮ মেট্রিক টন আতপসহ মোট ১৬,১৬৫ টন চাউল সংগ্রহ করার কথা। যাহা গত সপ্তাহে শুরু হয়েছে।
জেলার বিভিন্ন মিলারদের নাম গোপন করার

শর্ত সাপেক্ষে তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা গেছে যে সরকার নির্ধারিত চাউলের মুল্য সিদ্ধ চাউল ৩৬ এবং আতপ চাউল ৩৫ টাকা কেজি প্রতি নির্ধারিত থাকলে ও জেলার চাউল ব্যবসায়ীদের কেজি প্রতি ১ টাকা ৬০ পয়সা করে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তার নিকট জমা দিতে হয়েছে। যাহা জেলার বিভিন্ন মিলারের সাথে কথা বললেই বেরিয়ে আসবে।

তারা আরও জানায় এই বছর যেহেতু ধানের দাম কম তাহাতে এই দামে চাউল সরবরাহ করতে পারলে ভাল লাভ পাওয়া যাবে। যদি এই টাকা দিতে কেউ অস্বীকার করে তবে তাদের নিকট থেকে চাউল নেওয়া হবে না । তাই ব্যবসায়ীক ক্ষতি কাটীয়ে উঠতে এইটা না মেনে নিয়ে মিলারদের কোন উপায় থাকে না।

হিসাব করে দেখা গেছে যে টন প্রতি ১৬০০ টাকা করে ঘুষ দিতে বাধ্য হয়েছে মিলাররা। তাতে ১৬১৬৫ টনে ২ কোটি ৫৮ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা নিয়েছে। উল্লেখ্য যে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা নকীব সাদ সাইফুল ইসলাম গত ০২/ ০৫/২০১৯ তারিখে ঝিনাইদহে যোগদান করে। তার পূর্বের কর্মস্থল যশোরেও তার বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তার নিকট জানতে চাইলে কোন কথা না বলে, বলে যে এই টাকার ৭০% অন্যরা নিয়ে গেছে। শুনতে অনেক কিছুই শোনা যায় প্রকৃত পক্ষে তাহা না।