গায়ে বাতাস লাগিয়ে সড়ক অবরুদ্ধ করে যানজটের সৃষ্টি : দুর্ঘটনার আশংকা

43

নিজস্ব প্রতিবেদক : সড়কের দুই ধারে মটরসাইকেলসহ ছোট খাটো যান তথা অবৈধ্য নছিমন,করিমন,আলমসাধু,ইজিবাইক, ইঞ্জিনভ্যান দখল করে সড়ক দুর্ঘটনার আশঙ্কা সৃষ্টি করছে।

সাধারণ পথচারীসহ সকল প্রকার মানুষকে চলাচলে সড়ককে দ্রুতগামী ট্রাক,বাসের কবলে পড়ে দুর্ঘটনাযর আশংকায় থাকতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত । যানজট নিরসনে বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ সারা দেশে বলবৎ থাকলেও এর পরিসমাপ্তি দেয়াড়ায় ঘটছে না বলে মনে করেছেন সচেতন মহল।

সরজমিনে দেখা যায়, সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়াসহ বিভিন্ন সড়ক ও মোড় বাজার এলাকায় এমন জটলার ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটেই চলেছে ।

একাধিক সচেতন মহল অভিযোগের সুরে জানান,কলারোয়া উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নের খোরদো বাজার – কলারোয়া ও দেয়াড়া বাজার – কাজিরহাট এবং খোরদো – যশোর সড়কের মটরসাইকেল ষ্টান্ড ও হৃদয় সিনেমা হলের বিট মোড়ে মাত্রাতিরিক্ত যানজট সমস্যা দেখা যায়।
যার মুল কারণ হচ্ছে মেইন সড়কের পাশ দিয়ে মটরসাইকেল,ইজিবাইক, ইঞ্জিন ভ্যান,নছিমনসহ অন্যান্য যানবাহন চালক গায়ে বাতাস লাগিয়ে সড়ক অবরুদ্ধ করে থাকা। দ্রুতগামী যানবাহন বাস,ট্রাক,মিনিবাস চলাচলের সময় সাধারণ পথচারী দুর্ঘটনার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

তাছাড়া যানজটের কারণে প্রায় সময় মটরসাইকেল, ইজিবাইক, দ্রুতগামী ট্রাক, বাস চালকদের মধ্যে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হয় বলে জানান উপজেলার খোরদো বাজার মটরসাইকেল স্ট্যান্ডস্থ স্থানীয় দোকানীরা।

এছাড়াও স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থীসহ একাধিক পথচারী জানান উপজেলার দেয়াড়াসহ খোরদো বাজার মটরসাইকেল স্ট্যান্ড ও হৃদয় সিনেমা হলের বিট মোড় চিপা এবং টার্নিং মোড়ে উল্লেখ যানবাহনে যানজট সৃষ্টি করেই চলেছে এই অবৈধ যানবাহন ।অতি শংকিত ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পথ চলছে জনসাধারণ।

যানজট নয়,যেনো গরু হাট বলে আক্ষা দিয়ে-দেখার কেউ নেই এমনই ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকেই ।এছাড়াও দেয়াড়ার খোরদো বাজারে অবৈধ্য নছিমন একাধিকবার সেলুন, স্টুডিও দোকান ঘরে ঢুকে পড়ার দুর্ঘটনা সবারই জানা । যার জন্য ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ভুক্তভোগী ও পার্শ্ববর্তী দোকানীরা।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে খোরদো বাজার স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলেন,খোরদো মটরসাইকেল স্ট্যান্ডে সড়কের দুপাশ দখলকারী কতিপয় মটরসাইকেলসহ অন্যান্য যান চালককে – নিষেধ করা হলে নানান ধরনের গালিগালাজ করে তারা ।

দুঃখের সাথে প্রকাশ করেন আমরা সাধারণ মানুষ কিছু বললেই বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। তাছাড়া এক্সিডেন্ট ঘটছে প্রতিনিয়ত।এবং পার্শ্ববর্তী টল দোকানীরা অবৈধ ভাবে রাস্তার দু’ধার দখল করে রেখেছে । দোকান ঘরের সামনে রাস্তার পাশে খাটপালঙ্ক,টিনের বাক্সসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র রেখে পুরো রাস্তা দখল করে রেখেছে। সাতক্ষীরা – যশোর শহরের দ্রুতগামী যানবাহন মোড় ঘুরতে অসতর্কতায় ক্ষতি হলেই ভ্রাম্যমাণ চালকেদেরকে উপযুক্ত জরিমানা দিতে হয় বলে জানান স্থানীয়রা।

এদিকে আইন প্রশাসন যদি একটু সদয় হয়ে যানজট সমস্যা সমাধান উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করেণ তাহলেই দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকবে না সড়কে বলে মনে করেন স্থানীয় সচেতন মহল।
অতিদ্রুত ঐ সকল সমস্যা সমাধানের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা ।