খানপুরে এক অসহায় পরিবারের ইরি ধান কেটে নেওয়ার হুমকী: থানায় অভিযোগ

10
লাল সবুজের কথা- Lal Sobujer Kotha

স্টাফ রিপোর্টার: সাতক্ষীরা সদর উপজেলার খানপুর গ্রামের স্থানীয় একটি দখলদার মহলের হুমকীর কারণে এক অসহায় পরিবার তাদের ক্রয়করা জমির আধাপাকা ইরি ধান নিয়ে চরম আতঙ্কে দিনপার করছে।

এঘটনায় সাইফুল ইসলাম বাবু সাতক্ষীরা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে । অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে খানপুর গ্রামের মৃত আশরাফ আলী মোড়লের ছেলে সাইফুল ইসলাম বাবুরা ক্রয়সূত্রে খানপুর পশ্চিমবিলের বড়খালে ৭০শতক জমি দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছে। তাদের দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখলে থাকা উক্ত ক্রয়করা সম্পতি একই গ্রামের মুজিবর মোড়লের ছেলে রফিকুল ইসলাম নিজেদের জমি বলে দাবি করতে থাকে।

এ নিয়ে উভয়পক্ষের ভিতরে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিলো। জমি নিয়ে বিরোধ চলায় সাইফুল ইসলাম বাবুরা তাদের ক্রয়সূত্রে পাওয়া সম্পত্তি রক্ষার্থে সাতক্ষীরা সিভিল কোর্টে মামলা দায়ের করে। মামলায় সাতক্ষীরা সিভিল কোর্ট সাইফুল ইসলাম বাবুদের পক্ষে রায় দেয়। কোর্টের রায় সহ স্থানীয় সালিশীনামার রায় নিজেদের পক্ষে পাওয়ায় সাইফুল ইসলাম বাবুরা ঐ জমিতে ইরি ধান রোপণ করে।

তবে গত ৮ই ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকালে রফিকুল ইসলাম সহ তার গুন্ডা বাহিনী নিয়ে বাবুদের রোপণ করা ইরি ধান নষ্ট ও দখল করতে যায়।

এসময় সাইফুল ইসলাম বাবুরা জমির ধান নষ্ট ও জমি দখল করতে বাধাঁ দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় সাইফুল ইসলাম বাবু বাদী হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। এজাহার দায়ের করার পর থেকে রফিকুল ইসলাম মামলা তুলে নেওয়ার জন্যে বিভিন্ন ভাবে সাইফুল ইসলামকে সহ তার পরিবারকে হুমকী-ধামকী দিতে থাকে। তবে মামলা তুলে নিতে সাইফুল ইসলাম রাজি না হওয়ায় সম্প্রতি রফিকুল ইসলাম সহ একই গ্রামের হাকিমুদ্দীনের ছেলে মুজিবর রহমান, আশরাফ আলীর ছেলে ওসমান হোসেন, আজিবার রহমানের ছেলে বাবলু রহমান, লাভলু রহমান ও বজলু রহমান তাকে প্রাণনাশের হুমকী ও ইরি ধান কেটে নেওয়ার ভয়ভীতি দেখায়।

এঘটনায় মৌখিকভাবে এজাহারকৃত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাকে জানানো হলেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহ্রণ না করায় চরম অনিশ্চিয়তার ভিতরে দিনপার করছে সাইফুল ইসলাম সহ তার পরিবার।

এবিষয়ে সাইফুল ইসলাম বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্রকরে চরম অনিশ্চয়তার মাঝে দিন পার করছে সে সহ তার পরিবার। কোর্ট রায়, স্থানীয় সালিশীনামা তাদের পক্ষে থাকলেও রফিকুলরা সেটি মানতে নারাজ। তারা ক্ষমতা বলে জমি দখল ও জমির ইরিধান কেটে নেওয়ার জন্যে মরিয়া হয়ে গেছে। এঘটনায় সাতক্ষীরা সদর থানায় ফের একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জানান সাইফুল ইসলাম বাবু।

এসময় তিনি নিজের ক্রয়করা সম্পত্তি ও ইরিধান রক্ষার্থে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার ব্যবহৃত মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।