কয়রায় জলমহল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগ

18

ওবায়দুল কবির সম্রাট, কয়রা : উপজেলার কয়রা মৌজায় ১নং কয়রা গ্রামের মুড়িপোড়া জলমহল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় আনারুল গাজী, আলমগীর হোসেন ও আবুল কালাম গাজী সহ এলাকার শতাধিক ব্যক্তি স্বাক্ষরিত সরকারি জলমহল থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ করতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর গত ৮ এপ্রিল লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, মুড়িপোড়া জলমহলটি বর্তমানে মাঝের আইট মৎস্যজীবি সমিতি লিমিটেডের অনুকুলে ৩ বছর মেয়াদী ইজারাদেন উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটি।

জলমহল নীতিমালার আলোকে রূপ পরিবর্তনের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও ইজারা গ্রহীতার লোকজন জলমহলের সম্পত্তিতে মাটি ভরাট সহ সেখান থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে অন্যত্র বেচা বিক্রি করে আর্থিক ফায়দা লুটে নিচ্ছে। এতে সরকার রাজস্ব আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। ১নং কয়রা গ্রামের আজিজুল গাজী, রেজাউল মোড়ল ও হামিজ উদ্দিন ঢালী উক্ত জলমহালে মাটি দিয়ে ভরাট করে জমি দখলে নেওয়ার চেষ্টায় রত আছেন।

ভরাটের কারণে ৩.২৭ একর আয়তনের খালের মাত্র ২ একর জমি অবশিষ্ট রয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

অভিযোগকারীরা বালু উত্তোলন বন্ধ করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), জেলা সমবায় কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, থানা অফিসার ইনচার্জ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বরাবর অনুলিপি দিয়েছেন।

অভিযোগকারী ১নং কয়রা গ্রামের আনারুল গাজী ও আলমগীর হোসেন বলেন, জলমহল থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়টি গত ২৪ জানুয়ারি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিতভাবে জানানো হয়েছিল।

এরপর আজিজুল গাজী গংরা উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে ইউএনও’র কাছে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। এ ব্যপারে জানতে চাইলে জলমহল গ্রহীতার পক্ষে আজিজুল গাজী বলেন, হিংসার বশবর্তী হয়ে মান সম্মান ক্ষুন্ন কতিপয় ব্যক্তি ইউএনও’র দপ্তরে আমাদের বিরুদ্ধে অহেতুক অভিযোগ করেছে।