কেশবপুর বসত ভিটার পানি সরানোকে কেন্দ্র করে যুবককে হুমকী

14

পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর প্রতিপক্ষরা বসত বাড়ির পানি সরানোর পথ বন্ধ করে দিল

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: কেশবপুর বসত ভিটার পানি সরানোকে কেন্দ্র করে এক যুবককে হুমকী দেওয়ার ঘটনায় ১ আগষ্ট একাধিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর প্রতিপক্ষরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এদিকে মতিউর রহমানের বসত বাড়ির পানি সরানোর পথ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে পানি বন্দি হয়ে পড়ে ওই পরিবার। সাপের আতঙ্কে রাতে ঘুমাতে পারছে না তারা। বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নেওয়া প্রস্তুত চলছে। এ ঘটনায় মরিউর রহমান বাদী হয়ে কেশবপুর থানায় ২ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

উপজেলার লক্ষীনাথকাটী গ্রামের আলী হাসানের ছেলে মতিউর রহমানের সাথে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের মৃত মোবারেক মোড়লের ছেলে আজিজুর ও মৃত আনছার মোড়লের ছেলে জিয়াউর রহমানের সঙ্গে পূর্বশত্রুতা চলে আসছিল। মতিউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আমার বসত ভিটাতে পানি জমে থাকার কারণে ওই পানি সরাতে গেলে মঙ্গলবার দুপুরে আজিজুর ও জিয়াউর রহমান আমার বাড়ির সামনে এসে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে। আমি প্রতিবাদ করায় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে বাঁশের লাঠি ও দা দিয়ে আমাকে খুন করিতে আসলে আমি জীবন ভয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর প্রতিপক্ষরা আমার বসত বাড়ির পানি সরানোর পথ বন্ধ করে দেওয়ার কারণে আমার পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। আমার পরিবার সাপের আতঙ্কে রাতে ঘুমাতে পারছে না। এছাড়া পানি বন্দি হয়ে পড়ায় প্রথম শ্রেণির ছাত্র আমার ছেলে আলিফ হোসেন ও দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী আমার ভাইজি মিমের স্কুলে যাওয়া এক প্রকার বন্ধ হয়ে গেছে। দ্রুত বাড়ির পানি সরালে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করতে পারি সে জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ওই পরিবার। এ ব্যাপারে আজিজুর রহমানের মুঠোফোনে বক্তব্য নেওয়ার জন্য বারবার ফোন দেওয়া হলেও তার ফোন বন্ধ থাকায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।