কেশবপুর উপ-নির্বাচন উপলক্ষে দুই চেয়ারম্যানপ্রার্থী প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: আসন্ন কেশবপুরে মজিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচন জমে উঠেছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে ২ চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের প্রতীকে ভোট চেয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যেয়ে ব্যাস্ত সময় পার করে চলেছে।
যতই দিন ঘনিয়ে আসছে ততই যেন ভোটারদের কদর বেড়ে চলেছে। আগামী ২৫ জুলাই মজিদপুর ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচন উপলক্ষে পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে মজিদপুর ইউনিয়নের প্রতিটি বাজার, গ্রাম ও পাড়া-মহল্লা।

প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত ব্যাপকভাবে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন ওই ২ চেয়ারম্যান প্রার্থী। আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গাজী গোলাম সরোয়ার স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে নিয়ে প্রতিদিন মজিদপুর ইউনিয়নের একপ্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে যেয়ে তার নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে গণসংযোগ, লিফলেট বিতরন, মত বিনিময় সভা, পথসভা, উঠান বৈঠক, কুশুল বিনিময়, মটর সাইকেল শোভাযাত্রা অব্যাহত রেখেছে। এদিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গাজী সরোয়ারের পক্ষে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এসএম রুহুল আমীন, সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, কেশবপুর পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম মোড়ল, মজিদপুর ইউনিয়নে যেয়ে নৌকা প্রতীকের পক্ষে ভোট চাওয়াসহ পথসভা করে চলেছে।

পথসভায় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগ, মহিলালীগের নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিল। এছাড়া নৌকা প্রতীকের পক্ষে মজিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষকলীগের নের্তৃবৃন্দরা প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যেয়ে ভোট চেয়ে লিফলেট বিতরণ করেন। অপরদিকে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হুমায়ূন কবির পলাশ তার সমর্থকদের সাথে নিয়ে দিনভর তার আনারস প্রতীকে ভোট চেয়ে জোরে-সোরে চালিয়ে যাচ্ছে গণসংযোগ।

পথসভা থেকে শুরু করে মতবিনিময় সভা, ভোটারদের সাথে কুশুল বিনিময়, মটর সাইকেল শোভাযাত্রা থেমে নেই হুমায়ূন কবির পলাশের। এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে ছুটে চলেছেন আনারস প্রতীকের প্রার্থী হুমায়ূন কবির পলাশ। ভোটারদের কাছে তার আনারস প্রতীকে ভোট চেয়ে সৌজন্য মূলক সাক্ষাত করেছেন তিনি। সকলের কাছে দোয়া ও আশির্বাদ চেয়ে বিজয়ের আশায় তিনি গণসংযোগ, লিফলেট বিতরণে অব্যাহত রেখেছে।

অন্যদিকে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান আনারস প্রতীকের প্রার্থী হুমায়ূন কবির পলাশের পক্ষে কেন্দ্রীয় ছাত্র নেতা হুমায়ুন কবির সুমন নের্তৃত্বে প্রতিদিন মজিদপুর ইউনিয়নে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যেয়ে আনারস প্রতীকে ভোট চেয়ে গণসংযোগ, লিফলেট বিতরণ, মটর সাইকেল শোভাযাত্রা করে চলেছেন। জানা গেছে, মজিদপুর ইউনিয়নে বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু বকর আবুর মৃত্যুর পর ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদটি শূন্য ছিল। চেয়ারম্যান পদটি শূন্য থাকায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওই ইউনিয়নে উপ নির্বাচন তফশিল ঘোষণা করেন।

তফশিল ঘোষনা করার পর ওই ইউনিয়নে ২ জুলাই চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত গাজী গোলাম সরোয়ার, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, আব্দুল হালিম ও হুমায়ুন কবির পলাশ মনোনয়নপত্র জমা দেন। ৯ জুলাই মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ে সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ও আব্দুল হালিম প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন।

১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দের পর আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গাজী গোলাম সরোয়ার ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান আনারস প্রতীকের প্রার্থী হুমায়ূন কবির পলাশ মজিদপুর ইউনিয়নে বিভিন্ন গ্রাম, পাড়া-মহল্লা ও বাজারে যেয়ে জোরে সোরে চালিয়ে যাচ্ছে প্রচার প্রচারণা। তথ্য অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ১৪ টি গ্রাম নিয়ে গঠিত ৩ নং মজিদপুর ইউনিয়নের গত পাঁচটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এ ইউনিয়ন থেকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী একবার, বিএনপির প্রার্থী চারবার বিজয়ী হয়েছে।

সর্বশেষ একটানা ২ বার বিএনপির প্রার্থী এ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিহত আবু বকর আবু। সরেজমিন উপজেলার এ ইউনিয়নটি ঘুরে বিভিন্ন ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ওই ২ চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করাসহ মতবিনিময় করছেন।

এছাড়া প্রার্থীরা তাদের প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যেয়ে প্রার্থনা করছে।

error: লাল সবুজের কথা !!