কেশবপুরে হোটেল মালিকের স্ত্রীকে নিয়ে কর্মচারির পলায়ন

28

আজিজুর রহমান,কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: কেশবপুরে এক হোটেল মালিকের স্ত্রীকে পরকীয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে নগদ টাকাসহ উদাহ হয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ ঘটনায় হোটেল মালিক আজিজুর রহমা মোড়ল বাদি হয়ে কেশবপুর থানায় ২ জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে উপজেলার খতিয়াখালী গ্রামে বজলুর রহমান মোড়লের ছেলে আজিজুর রহমান মোড়ল কেশবপুর শহরের নতুন ব্রিজের পাশে মিষ্টির দোকান করে ব্যবসা বাণিজ্য করে আসছে। আজিজুর রহমান মোড়ল সাংবাদিকদের জানান একই উপজেলার ব্যাসডাঙ্গা গ্রামের হোটেল কর্মচারী আলমগীর হোসেন আমার হোটেলে কাজ করতেন। সেই সুযোগ বুঝে প্রায় দিন আমার বাড়িতে আলমগীর হোসেন যাতায়াত করতেন। তখন থেকে আমার স্ত্রী হোসনেয়ারা খাতুন কে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলেন। হোটেল কর্মচারী আলমগীর হোসেন মধ্যকুল গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে মামুন হোসেনের সহযোগিতায় আমার স্ত্রী হোসনেয়ারাকে গত ১৬ মে সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে নগত ১ লক্ষ টাকা ও স্বর্ণলংকারসহ প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল নিয়ে আমার শিশু সন্তান হোসাইন কেউ নিয়ে অজানার উদ্দেশ্য পাড়ি জমিয়েছে একাধিক বিয়ের নায়ক হোটেল কর্মচারী আলমগীর হোসেন। সে আরও বলেন ইতিপূর্বে ঐ আলমগীর হোসেন মেয়েদেরকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ ব্যাপারে মুঠোফোনে আলমগীর হোসেনের বক্তব্য নেওয়ার জন্য বারবার ফোন দিলেও ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। আজিজুর রহমান মোড়ল প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছেন আমার স্ত্রী ও সস্তানকে ফেরত পাইতে পারি তার জন্য আপনাদের কাছে হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এই ব্যাপারে কেশবপুর থানার এএসআই আজিম বলেন অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।