সর্বশেষ সংবাদ

কেশবপুরে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

আজিজুর রহমান, কেশবপুর প্রতিনিধি : কেশবপুরে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকা অনশন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার পর থেকে ওই প্রেমিক এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছে।

উপজেলার সরসকাটি গ্রামের আব্দুল গণির ছেলে কেশবপুরে একটি কওমী মাদ্রাসার ছাত্র মাহবুর রহমানের সঙ্গে মণিরামপুর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের মোশারফ গাজীর মেয়ে মুসফিকার সাথে দীর্ঘদিন ধরে তাদের প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। মুসফিকা সাংবাদিকদের জানান, আমার পরিবার অন্যথায় আমাকে বিয়ে দেওয়ার কথা আলোচনা করছিল।

সে কারণে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমার প্রেমিক মাহবুরের বাড়িতে বিয়ের দাবী এনে অনশন শুরু করি। সে অনশনকালে ওই ছাত্রী বলেন, বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত প্রেমিকের বাড়িতে আমি অনশন করবো। মাহবুরের চাচাত ভাই বিল্লাল হোসেন জানান, মাহবুরের প্রেমিকা মুসফিকা বিয়ের দাবী এনে অনশন করেছিলো। ওই সময় মাহবুর রহমান ঝিকরগাছা বাজারে অবস্থান করতেছিলো। পরে মোবাইলে যোগাযোগ করে যশোরের ঝিকরগাছা বাজারে চলে যায় মুসফিকা। ওই সময় মাহবুর রহমান তার প্রেমিকাকে নিয়ে ঝিকরগাছা উপজেলার মিশ্রিদাড়া গ্রামে তার নানা বাড়িতে অবস্থান নেয়। ওই রাতেই মুসফিকার পরিবাররা তাকে না পেয়ে মাহবুরের বাড়িতে পুলিশ নিয়ে হানা দেয়।

এ সময় প্রেমিক প্রেমিকা ওই গ্রাম ছেড়ে মাহবুর রহমান তার বাড়িতে ফেরেন। বাসুদেব পুরের ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম জানান, মুসফিকার বয়স ১৪/১৫ হবে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাহবুর তাদের বাড়িতে এসে মুসফিকাকে তুলে নিয়ে যায়। আমরা রাতে তাদেরকে খোজাখোজির নানা চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু মাহবুরের পরিবার তাদের কোন সঠিক সন্ধান না দেওয়ায় অবশেষে খেদাপাড়া পুলিশ ক্যাম্প বরবার মেয়ে পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়।

শুক্রবার দুপুরে খেদাপাড়া ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সালাউদ্দিন অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেমিক প্রেমিকার বয়স কম থাকায় তাদেরকে উদ্ধার করে ক্যাম্পে নিয়ে যায়। উভয় পরিবারকে মিমাংসা করার জন্য ফাড়িতে ডাকা হয়েছে।

error: লাল সবুজের কথা !!