কেশবপুরে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মহিলাসহ আহত – ৬ ॥ নগদ টাকা লুট বাড়িঘর ভাংচুর

29
লাল সবুজের কথা- Lal Sobujer Kotha

আজিজুর রহমান, কেশবপুর থেকে: কেশবপুরে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা হামলা চালিয়ে মহিলাসহ ৬ জনকে মারপিঠ করে নগদ টাকা লুট ও ঘরবাড়ি ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ৩ জনকে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি ৩ জন স্থানীয় চিকিৎসা নিয়েছে। এঘটনায় আবুল হোসেন বাদী হয়ে ১৫ জনের বিরুদ্ধে কেশবপুর থানাসহ একাধিক দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

শনিবার দুপুরে সরেজমিনে ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শ্রীফলা গ্রামের আবু সরদারের ছেলে আব্দুল মান্নান সরদার একই গ্রামের মৃত জবেদ আলী সরদারের ছেলে অছোফ সরদারের কাছে ছাদের সেন্টারিং করা কাঠ ভাড়া বাবদ ৬ হাজার টাকা পাবে। আব্দুল মান্নান তার পাওনা টাকা প্রায় সময় অছোফের কাছে চাইতে যায়।

আব্দুল মান্নান (৩৫) সাংবাদিকদের জানান, পাওনা ৬ হাজার টাকা চাওয়ায় কথা কাটা-কাটির একপর্যায়ে একই গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ সরদারের ছেলে তরিকুল ইসলাম টুটুল, তার স্ত্রী আসমা খাতুন, পিপুল সরদারের স্ত্রী চায়না বেগম ও ছেলে সোহেল সরদার, মৃত জবেদ সরদারের স্ত্রী মরিয়ম বেগম ও ছেলে অছোফ সরদার, মৃত মজিদ সরদারের ছেলে শফি সরদার, মৃত মান্দালী সরদারের ছেলে খালেক সরদার, সমীর সরদার ছমির সরদার ও তুষার, মান্দার সরদারের ছেলে ওলিয়ার সরদার, ছোহরাফ সরদারের ছেলে হুমায়ুন সরদার, মৃত গিয়াস সরদারের ছেলে রোস্তম সরদার, মৃত সিরাজ সরদারের ছেলে জয়েন সরদার, ইজ্জত সরদারের ছেলে দিলু সরদার ও নাসিমা বেগম মিলে সাপোল, রড, দা ও কালা দিয়ে আমার ওপর হামলা চালায়।

এসময় আমার পিতা আবু সরদার (৭০), মা রহিমা বেগম (৬০), চাচা আব্দুল মোমিন সরদার (৪৮), চাচী শরিফা বেগম (৪২), প্রতিবেশী নাজমা বেগম (৪০) ঠেকাতে আসলে তাদেরকেও মারপিঠ করে গুরুতর আহত করে। এসময় তারা আমাদের ঘরে রাখা গচ্ছিত নগদ ১ লক্ষ টাকা নিয়ে নেয় এবং বাড়ি ঘর ভাংচুর করে।আমার পিতা আবু সরদার, মা রহিমা বেগম ও আমি মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছি।

এ ব্যাপারে সরাসরি তরিকুল ইসলাম টুটুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, আমরা তাদেরকে মারপিঠ করিনি। বরং তারা আমাকে আচমকা ভাবে হামলা চালায়। আমি গুরুতর আহত অবস্থায় বর্তমানে কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছি। আমার ওপর হামলা চালানোর ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হবে।