কেশবপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে এক অসহায় পরিবারকে মিথ্যা চুরির অপবাদ দিয়ে হয়রাণী অভিযোগ

26

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি : কেশবপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে এক অসহায় পরিবারকে মিথ্যা চুরির অববাদ দিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দিয়ে হয়রাণী করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে প্রতিপক্ষরা। উপজেলার পাচুরাই গ্রামের শহীদুল দফাদার ও তার স্ত্রী রশিদা বেগম সাংবাদিকদের জানান প্রতিবেশী মৃত জোহর আলী দফাদারের ছেলে মফিজুর দফাদারের কাছ থেকে ৬ শতক জমি ক্রয় করার জন্য কিছু টাকা বায়না দেওয়া হয়। সেই সুত্র ধরে ঐ ৬ শতক জমি একই গ্রামের মৃত দলিল দফাদারের ছেলে মহাতাপ দফাদার গত ৭ মাস আগে ঐ জমি ক্রয় করে। সেই থেকে ঐ জমি নিয়ে প্রতিবেশী মৃত আসমান দফাদারের ছেলে ময়িনুলের সঙ্গে আমাদের বিরোধ চলে আসছে।

এদিকে ময়িনুল তার ব্যবহৃত একটি বাইসাইকেল গত ২১ সেপ্টেম্বর রাতে তার বাড়ি থেকে ঐ সাইকেলটি চুরি হয়ে যায়। আমার ছেলে শরিফুল দফাদারকে মিথ্যা চুরির অপবাদ দিয়ে এক প্রকার আমার ছেলেকে মারপিট করে। এছাড়া আমাদের পরিবারকে একের পর এক মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানী করে আসছে। তারা আরও বলেন আমার ছেলে শরিফুল দফাদার ইট ভাটায় শ্রমিক হিসাবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে। গত বছরের আমার ও আামর স্বামীকে ষড়যন্ত্র মুলক মামলা দিয়ে জেল খাটিয়ে ক্ষ্যান্ত হয়নি ঐ প্রতিপক্ষরা এর কিছুদিন আগে মইনুল দফাদার তার নিজের হাতে নিজেই ক্ষত করে আমাদের উপর চাপ সৃষ্টি করে প্রায় ৩ হাজার টাকা আদায় করে নিয়েছে। তাদের অত্যাচারে আমরা আর সইতে পারছি না। মইনুল প্রতিনিয়ত আমার পরিবারকে প্রকাশ্যে বিভিন্ন প্রকারের ভয় ভীতি সহ হুমকি দিয়ে চলেছে। তার কারণে যে কোন মুহুর্তে আমরা আত্মহত্যা করে জীবন দিয়ে দিব। এব্যাপারে মুঠোফোনে মইনুলের কাছে জানতে চাইলে তার স্ত্রী বলেন আমাদের বাড়ি থেকে একটি বাইসাইকেল চুরি হয়ে যায়। এ ঘটনায় আমার স্বামী বাদি হয়ে কেশবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। তাদেরকে হয়রানি করার কোন প্রশ্নই উঠে না।