কেশবপুরে কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিচ্ছে ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা

19

আজিজুর রহমান, কেশবপুর প্রতিনিধি ।। করোনাভাইরাসের কারণে পাকা ধান কাটতে না পারা কেশবপুর উপজেলার দিশাহারা কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। করোনাপরিস্থিতিতে ধান কাটার শ্রমিক না পাওয়ায় বর্তমানে ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা কৃষকের ধান কেটে, ধান বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন।

তারই অংশ হিসাবে কেশবপুর উপজেলার ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা শনিবার সকাল থেকে কেশবপুর পৌরসভার ভগতি ২ নম্বর ওয়ার্ডের কৃষক বাপ্পির ১০ শতক জমির বোর ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

কেশবপুর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক হাবিবুর রহমান খান মুকুল, ছাত্রলীগ নেতা শারাফাত হোসেন সোহান, রায়হান কবির, খন্দকার জসিম, রাসেল পারভেজ, মোহাম্মদ নাসিম, রোকনুজ্জামান রোকন, মোহাম্মদ জিন্নাত, আব্দুর রহমান, রিপন, পরাগ, আলিমুল ইসলাম প্রমুখদেশের এই সংকটময় মুহূর্তে কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যে দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়েছেন সে কারণে খুশি এলাকাবাসী ও কৃষকরাও।

কৃষক বাপ্পি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছাত্রলীগ শুধু রাজনীতি করে না এরা সব কাজের কাজী। আজ উপজেলা ছাত্রলীগ যে ভাবে আমার ধান কেটে দিয়েছে এতে এটাই প্রমানিত হয়েছে ছাত্রলীগ মানব সেবা়সহ দেশের উন্নয়ন কাজেও গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা পালন করে। আজ যদি ছাত্রলীগ আমার ধান কেটে না দিত তাহলে শ্রমিকের অভাবে হয়তো আমার ধান পানিতে তলিয়ে যেত। আমি ছাত্রলীগ নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞ ও ধন্যবাদ জানাই। আর মামনীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করি। শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। শ্রমিক না পাওয়ায় নিজ জমির পাকা ধান কাটতে পারছেন না কৃষকরা। তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিন স্যার, সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, ও পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম মোড়লের, সহযোগিতায় উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ কৃষকদের পাশে থেকে স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে ও বাড়িতে পৌঁছে দিচ্ছে।