কেশবপুরে এক শিক্ষার্থীর ম্যাজিক দেখার জন্য ভিড় জমায় শত শত মানুষ

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: কেশবপুরে এক শিক্ষার্থীর ম্যাজিক দেখার জন্য ভিড় জমায় শত শত মানুষ। সুজন ঘোষ অন্তু উপজেলার বিভিন্ন গ্রামসহ শহরে ম্যাজিক দেখিয়ে আসছে। সে দীর্ঘদিন ধরে যশোর জেলার বিভিন্ন গ্রামে-গঞ্জ, রাস্তাঘাট, হাটবাজারসহ বৈশাখী মেলা, মধুমেলা ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যেয়েও সে ম্যাজিক পরিবেশন করে থাকে। তার বাড়ি কেশবপুর উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি গ্রামের তপন কুমার ঘোষের ছেলে সুজন ঘোষ অন্তু।

ম্যাজিক দেখানোর কারণেই তাকে বড়রা-ছোটরা ম্যাজিক অন্তু বলে ডাকে। বিভিন্ন জায়গায় ম্যাজিক দেখিয়ে মানুষকে মুগ্ধ করাতেই তার আনন্দ। সেকারণেই বিভিন্ন অঞ্চলে ছোট বড় অনুষ্ঠান হলেই সুজন ঘোষ অন্তুর ডাক পড়ে। সোমবার দুপুরে কেশবপুর শহরের মেইন সড়কের পূর্ব পাশে ব্রাদার্স কম্পিউটারে মোবাইল সার্ভিসিং করতে আসলে দেখা হয় তার সাথে।

এ সময় লোকজনের অনুরোধে সে বিভিন্ন প্রকারের ম্যাজিক দেখায় ব্রাদার্স কম্পিউটারে বসেই। ম্যাজিক দেখানোর ফাঁকে ফাঁকে কথা হয় সুজন ঘোষ সুজন ঘোষ অন্তুর সাথে। সে বলে আমি কালিয়ারই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণীতে পড়াশুনা করি। লেখা-পড়ার পাশাপাশি ম্যাজিক দেখিয়ে আমি মানুষকে মুগ্ধ করি। আমার পিতা তপন কুমার ঘোষ কৃষিকাজ করে কোনরকমে সংসার চালান।

আমি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ম্যাজিক দেখিয়ে আমার পিতাকে সাহায্য করি। প্রায় ১ বছর আগে থেকে ম্যাজিক দেখিয়ে আসছি আমি বিভিন্ন স্থানে। আমার খুব স্বপ্ন আমি বড় ম্যাজিশিয়ান হবো। তবে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার স্বপ্নও রয়েছে আমার।

error: লাল সবুজের কথা !!