কেশবপুরে এক মহিলা গর্ভবর্তী না হয়ে মার্তৃতকালীন ভাতা উত্তোলনের অভিযোগ

31

আজিজুর রহমান, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি:  কেশবপুরে এক মহিলা গর্ভবর্তী না হয়ে মার্তৃতকালীন ভাতা উত্তোলন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে এ ঘটনায় জুলফিজার আলী মোড়ল বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বুড়িহাটি গ্রামের ইসাহাক আলী মোড়লের স্ত্রী মাফুজা বেগম গর্ভবর্তী না হয়ে মার্তৃতকালীন ভাতার একটি কার্ড তৈরি করে। সে কার্ড অনুযায়ী পর পর তিন বার হাসানপুর কৃষি ব্যাংক থেকে এই টাকা উত্তোলন করেন। জুলফিকার আলী মোড়ল সাংবাদিকদের জানান, মাফুজার স্বামী ইসাহাক আলী মোড়লের বিরুদ্ধে এলাকায় ছাগল-গরু, হাঁস-মুরগি ও মাছ ধরা জালসহ বিভিন্ন ফসলের মালামাল চুরি করার কারণে ইসাহাক আলী মোড়লকে হাতে নাতে ধরে এলাকাবাসী গণ ধোলাই দেওয়ার পর তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছিল। ওই ঘটনায় থানায় মামলা হয় তার নামে।

এব্যাপারে সরাসরি ইসাহাক মোড়লের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে সেটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি এলাকায় কখনও চুরি করেনি। জমি সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা আমাকে ফাঁসাতে ষড়যন্ত্র মূলক অভিযোগ দিয়ে হয়রাণী করে চলেছে এবং আমার স্ত্রী মাফুজার গর্ভে সন্তান থাকা কারণে টাকা উত্তোলন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে ইউপি সদস্য আব্দুর জব্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, মাফুজা বেগম মার্তৃকালীন ভাতা উত্তোলনের বিষয় আমি কিছু জানিনা। তবে তার স্বামী বিরুদ্ধে এলাকায় বিভিন্ন চুরির অভিযোগে একাধিকবার জেল খেটেছে। এ ব্যাপারে হাসানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুলমত আলীর মুঠোফোনে ফোন দেওয়া হলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।