কেশবপুরে অবৈধ ঘের ও পুকুর মালিকদের স্বেচ্ছাচারিতার কারনে সরকারী রাস্তার কাজ বন্ধের অভিযোগ

18
কেশবপুরে অবৈধ ঘের ও পুকুর মালিকদের স্বেচ্ছাচারিতার কারনে সরকারী রাস্তার কাজ

আজিজুর রহমান, কেশবপুর থেকে : কেশবপুরে সরকারী রাস্তার দু-পাশের অবৈধ দখলদার ঘের ও পুকুর মালিকদের সীমাহিন স্বেচ্ছাচারিতার কারনে মঙ্গলকোট-হিজলডাঙ্গা সড়কের পিচ ঢালায়ের কাজ বন্ধ হয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলকোট-হিজলডাঙ্গা সড়ক নির্মান কাজের ঠিকাদার আব্দুল আহাদ তার অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, এক কোটি ৮১ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ৩.৭৫০ কিঃ মিঃ মঙ্গলকোট-হিজলডাঙ্গা সড়কের পিচ ঢালায়ের কাজ আগামী ১৫-০৫-১৯ তারিখের মধ্যে সম্পন্ন করার কথা রয়েছে। ইতোমধ্যে রাস্তার প্রায় ৭০% কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

বাকী ৩০% কাজের মধ্যে সড়কের বাউশালা থেকে হিজলডাঙ্গা পর্যন্ত রাস্তার দু-পাশের অবৈধ দখলদার যথাক্রমে শুকুর গাজি, শরিফুল ডাক্তার, জলিল গাজী, হাকিম সরদার, আব্দুল আজিজ,ফারুক হোসেন, আরকান উদ্দীন ও অধীর রায়ের পুকুর ও মৎস্য ঘের রয়েছে।রাস্তার দু-ধারের এসকল অবৈধ দখলদারদের প্রায় ৩ মাস ধরে পানি সেচের কথা বলা হলেও তারা সেটি আমলে না নিয়ে বিভিন্ন অজুহাত ও তালবাহনা শুরু করেছে।

অদ্যবদি পানি সেচ না দেয়ার কারনে বর্তমানে রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় যথাসময়ে সড়কের কাজ সম্পন্নে অনিশ্চয়তার আশংকা করছেন এই ঠিকাদার। তিনি পুকুর ও ঘেরের পানি সেচপূর্বক সরকারী রাস্তা সংষ্কারের যথাযথ পরিবেশ সৃষ্টির জন্য অবৈধ দখলদারের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।