“কপোতাক্ষী” কবিতার ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ

4

মোঃ রিপন হোসাইন,পাটকেলঘাটা: কপোতাক্ষ নদের ধারে কবি, সাহিত্যিক, ডাক্তার, আউলিয়া, সাধক, বিভিন্ন প্রকার উপাসনালয় মসজিদ, মন্দির, গীর্জা রয়েছে, ঐহিত্যবাহী পাটকেলঘাটা কলেজে পাঠদান, ফলাফল, বেশী বেশী ক্লাস নিয়ে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে আন্তরিকতার সৃষ্টি করে আন্তরিকতার বহি প্রকাশ ঘটাতে হবে। শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ইতিহাস খ্যাত, বর্তমান সরকার ছাত্র-ছাত্রীদের সকল যৌতিক দাবী মেনে নিয়েছেন। বর্তমান সরকার শিক্ষার মান উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে গিয়েছে, দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাক হানাদার সেনারা যদি জানতো কোন পরিবার থেকে কেহ মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছে তাহলে ঐ পরিবারের সদস্যদের নির্যাতন করে হত্যা করেছে, আবেগ অনুভূতির বহিপ্রকাশ মুক্তিযুদ্ধ, কবিতা না লিখতে পড়তে পারলে আমরা আজ ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ করে নিজেদের দাবী আদায় করতে পারতাম না। ৭১ এ যারা যুদ্ধে গিয়েছিল তারা টাকা চাইনি, অন্ন চাইনি, কোন সুবিধা চাইনি চেয়েছিলো শুধু মাত্র অন্ত্র কারন পাকবাহিনীর পরাজিত করে তারা দেশটাকে স্বাধীন করবে, শনিবার সকাল ১১টায় পাটকেলঘাটা হারুণ অর রশিদ মহাবিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতার পুত্র সুলতান আহমেদ এর “কপোতাক্ষী” কবিতার ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠান উপরোক্ত কথাগুলো বলেন, সাতক্ষীরা-১ (তালা কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান পিন্টুর সভাপতিত্বে পাটকেলঘাটা হারুণ অর রশিদ কলেজের ২০৬ নং কক্ষে কবিতা ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজ অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান, পরবর্তিতে নিজের লেখা “কপোতাক্ষী” পাঠ করেন কলেজের প্রতিষ্ঠাতা হারুণ অর রশিদ এর পুত্র সুলতান আহমেদ। এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন, সাতক্ষীরা-১ আসনের সদস্য সদস্য এ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন, তালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, পাটকেলঘাটা থানা অফিসার ইনচার্জ রেজাউল ইসলাম রেজা, তালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মফিজউদ্দীন মোড়ল, পাটকেলঘাটা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ওয়াজিহুর রহমান খান, তালা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, কবি ডাঃ মোহন সাধু, পাটকেলঘাটা কলেজের সাবেক অধ্যাপক বীরেন্দ্রনাথ মাহাতা। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কলেজের প্রভাষক ফকির আহমদ সাহা।