এসআই পিন্টু লাল দাসকে বদলিতে সাধারণ মানুষের মনে ক্ষোভ

17

মোঃ জাকির হোসেন, শার্শা প্রতিনিধিঃ যশোর জেলা প্রতিনিধি: যারা মানব সেবা করে তারাই প্রকৃত মানুষ। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর গৌরব এবং আদর্শের প্রতিক পুলিশ কর্মকর্তা এস.আই পিন্টু লাল দাস, আর সে সব ব্যক্তিদ্বয় সকল লোভ লালসা অর্থ মোহের উর্ধ্বে থেকে মানব সেবা করে যাচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম এই এসআই পিন্টু লাল দাস। আর এমন পুলিশ অফিসারকে বদলি করায় বেনাপোল পোর্ট থানাধীন এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এমন সৎ পুলিশকে কেন বেনাপোল থেকে বদলি করা হচ্ছেএটা নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠছে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, বেনাপোল পোর্ট থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই পিন্টু লাল দাসকে যশোরের কেশবপুর থানার বদলি করা হয়েছে।

শুধু মানুষের সন্তুষ্টি নয় সৎ কর্মের মধ্যে দিয়েই একজন মানুষ আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করতে পারে। সর্বদা দয়া, দক্ষিণা, ক্ষমা বিনিময়, সরলতা শিষ্টাচার ও সৎ গুনাবলীর অধিকারী হয়ে আছেন। তেমনি ঝালকাঠি সদর থানার গড়ংগল গ্রামের ন্যায়পরায়ন সময়ের শ্রেষ্ঠ সাহসী ও কৃত্বি সন্তান এসআই পিন্টু লাল দাস। সত্য, ন্যায় আর অপরাধীদের বিরুদ্ধে নির্ভীক পথচলার শপথ নিয়েই পুলিশ বাহিনীর প্রতিটি সদস্য এই মহান পেশায় যোগদান করে। কিন্তু অপ্রিয় হলেও সত্যিটা অনেকটাই আলাদা, কতিপয় পুলিশ সদস্য এই মহান পেশাকে হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করে নিজের আখের যোগাতে ব্যস্ত থাকে। তারাই হয় অপরাধীদের পথচলার সাথী। কিন্তু এত প্রতিকুলতার মাঝেও পুলিশ বাহিনীর হাল ধরে রেখেছেন যিনি তিনি হলেন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর অহংকার এস.আই পিন্টু লাল দাস বেনাপোল পোর্ট থানায় সেকেন্ড অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছে। তার কৃতিত্বের বর্ণনা যতই করিনা কেন সবই কম মনে হবে, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক, চাঁদাবাজি, তথা সকল অপরাধমূলক কর্মকান্ড বেনাপোল পোর্ট থানাধীন এলাকা থেকে সমূলে উৎপাটন করে একের পর এক সাফল্য তার হাত ধরে এসেছে। এসআই পিন্টু লাল দাস খুলনা রেঞ্জের শ্রেষ্ট এসআই নির্বাচিত হয়ে এবং তিনি যশোর জেলা শ্রেষ্ট এসআই পুরস্কার পেয়েছে।

বেনাপোল থানার সামনের চায়ের দোকানদাররা বলেন, দারোগা পিন্টু লাল দাস এর মত অফিসার আমরা কখনও দেখি নাই। সাধারন মানুষ কোন বিপদে পড়লে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তিনি সেই বিপদ থেকে উদ্ধার করে। সাধারন মানুষের প্রিয় তেমনই।

মাদক,চোরাচালানীদের কাছে আতংকের নাম এসআই পিন্টু লাল দাস। এমন সৎ সাহসী পুলিশকে আমাদের মাঝ থেকে কেন বদলি করা হলো আমরা বুঝতে পারছিনা। আমরা চাই এমন পুলিশ অফিসারের বদলির আদেশ পরিবর্তন করে বেনাপোল পোর্ট থানায় আগের অবস্থায় যথারীতি তার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকুক ।