এশিয়ার ৪১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যেও নেই বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়

আব্দুজ জাহের নিশাদঃ  লন্ডন-ভিত্তিক সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন ‘টাইমস হায়ার এডুকেশন ‘ তাদের পরিচালিত জরিপ অনুযায়ী এশিয়ার ৪১৭টি সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে । তালিকায় বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম নেই ।

চারটি মৌলিক বিষয় – পাঠদান, গবেষণা, জ্ঞান আদান – প্রদান এবং আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি ইত্যাদির উপর ভিত্তি করে সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা প্রকাশ করা হয়।

যদিও তালিকায় চীনের ৭২টি,ভারতের ৪৯টি,তাইওয়ানের ৩২টি, পাকিস্তানের ৯টি,হংকংয়ের ৬টি সহ নেপাল ও শ্রীলন্কার সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আছে কিন্তু নাম নাই বাংলাদেশের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের।

এর কারণ জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, “যেসব উপাত্তের ভিত্তিতে তালিকা করা হয় সেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পর্যাপ্ত ও সঠিক তথ্য উপাত্ত ছিলনা। তারা নিতে পারেনি বা আমরা দিতে পারিনি।একটি বিশ্ববিদ্যালয় সেই দেশের সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে কতটুকু অবধান রেখেছে তা সঠিক মূল্যায়ন করা হয়নি । এটা মূল্যায়ন করা হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান অনেক উপরে থাকতো।”

তিনি বলেন,”আমাদের গবেষণায় বরাদ্দের যে হিসাব দেওয়া হয়েছে তাও ঠিক নয় । এখানে বেসরকারি ও ব্যক্তিগত পর্যায়ে অনেক হিসাব হয় । তাঁরা শুধু সরকারি হিসাব টায় করেছে। বাস্তবে এখানে অনেক বেশি গবেষণা হয়।

শিক্ষকদের সম্পর্কে তিনি বলেন, “এ বছর ৩৫জন শিক্ষক বঙ্গবন্ধু স্কলারশিপের আওতায় বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠিয়েছি । তাঁরা যোগ্যতার ভিত্তিতেই সেখানে গেছেন।”

শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে তিনি বলেন, “আমাদের শিক্ষার্থারা বিশ্বের বড় বড় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যান তাদের মেধা – মননের ভিত্তিতেই।”

শিক্ষার মানের ক্ষেত্রে তিনি বলেন, “আমাদের শিক্ষার অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। আমরা শিক্ষার মান নিয়ে কনফিডেন্ট।”

তাঁর মতে, তালিকায় এ বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান উঁচুতেই থাকবে।

error: লাল সবুজের কথা !!