এক রাত ঘুমিয়েই আয় সাড়ে ৫ হাজার ডলার

16

লাইফস্টাইল ডেস্ক: চাকরিতে সময় নষ্ট করার চিন্তা মাথায় আনাই অপরাধ! নেমে আসতে পারে খড়গ। কিন্তু টুইচ স্ট্রিমারদের ক্ষেত্রে ঘুমই যে অর্থ উপার্জনের অন্যতম মাধ্যম! তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজন আছেন, যারা স্ট্রিমিং সাইটে বেশ জনপ্রিয়।

রাতে ঘুমিয়ে ঘুমিয়েই তারা অতিরিক্ত অর্থ আয় করছেন। ভারতীয় গণমাধ্যম উইয়ার্ডের এক তদন্তে নতুন এই প্রবণতাটি উঠে এসেছে।

এক মার্কিন ভিডিওনির্মাতা বলেন, এত রাত ঘুমিয়েই তিনি পাঁচ হাজার ৬০০ ডলার পেয়েছেন।- খবর দ্য সানের

দর্শকদের সঙ্গে রসিকতা করে স্ট্রিমার ম্যাথিও মিজকিফ রিনাওডো বলেন, যদি মা দেখতে পান যে আমি ঘুমিয়ে অর্থ পাচ্ছি, তবে তিনি রাগে আগুন হয়ে যাবেন। মা ভাবছেন, আমি কিছুই করছি না। কিন্তু যদি দেখতে পান, আমি ঘুমাচ্ছি, আর ঘুমিয়েই অর্থ আসছে, তবে নিশ্চিয়ই রাগ করবেন।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্ট্রিমিং সাইট টুইচের মালিক অ্যামাজন। দৈনিক গড়ে তাদের দেড় কোটি ব্যবহারকারী রয়েছেন। স্ট্রিমাররা বেশিরভাগ সময় ভিডিও গেম খেলেন। কেউ শিল্পকর্ম কিংবা সংগীত বানান। আবার কেউ বক বক করতে করতে নিজেদের ভিডিও বন্দি করেন।

২০১১ সালে অ্যামাজন এই লাইভ স্ট্রিমিং সেবাটি চালু করে। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেখা যাচ্ছে গেইম নয়, ঘুম লাইভ করছেন স্ট্রিমাররা। ঘুমানোর আগে ক্যামেরাটিকে নিজের দিকে তাক করে মেঝের ওপর রেখে দিচ্ছেন বেশ কিছু স্ট্রিমার।

ওই স্ট্রিম দেখে অনেকে আবার নানা পরিমাণের অর্থও ‘ডোনেট’ করছেন, কেউ হয়তো দিচ্ছেন দুই ডলার, কেউ দিচ্ছেন পাঁচ ডলার। ডোনেট বাটনের মাধ্যমে এভাবে পাওয়া অর্থগুলোকে নিদ্রা পার্টি নাম দিয়েছেন অনেক স্ট্রিমার।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন বলছে, জাপানিজ কাডল ক্যাফে বা এএসএমআর ধাঁচের ভিডিও দর্শকরাই এ ধরনের ঘুমের ভিডিও বেশি দেখছেন। নিঃসঙ্গতা দূর করতে অনেকেই এ ধরনের অনলাইন ভিডিওগুলোর শরণাপন্ন হয়ে থাকেন।